গীতি গমন চন্দ্র রায় গীতি।।স্টাফ রিপোর্টার।।ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ উপজেলার ৫ নং সৈয়দপুর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের নিয়ামতপুর গ্রামের বিষ্ণু রায়ের স্ত্রী দেবী রানী অতি দরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থান কর্মসূচীর ২০২১-২০২২ অর্থ বছরের ১ম পর্বের শ্রমের মূল্য এখনো পায়নি অসহায় দেবী রানী।

জানা যায়,দেবী রানী ৫ নং সৈয়দপুর ইউনিয়নের নিয়ামতপুর গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা ও দিন মজুর বটে।গত ২০২১-২০২২ ১ম পর্বের ইজিপিপি প্রকল্পের ৪০ দিনের কর্মসূচী মাটি কাটা কাজ সমাপ্ত হলে ও তিনি এখনো কোন টাকা পয়সা পাননি।অথচ টাকা না পেয়ে ও দেবী রানী ২য় পর্বের কাজ করে যাচ্ছেন।

এ বিষয়ে দেবী রানীর সাথে কথা হলে তিনি সাংবাদিক কে জানান আমি ১ম পর্বে ৪০ দিন মাটি কাটা কাজ করেছি এখন ২য় পর্বে কাজ করছি কিন্তু এখনো কোন টাকা পয়সা পাচ্ছি না।আমি যেন অবিলন্বে সকল টাকা পাই এটাই অনুরোধ করছি। এবং এ বিষয়ে মাটিকাটা দলের সর্দারের সাথে কথা হলে তিনি সাংবাদিক বলেন টাকা দেওয়ার ব্যবস্থা চলছে।