image_print

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সপ্তাহে তিন দিন ছুটির পরিকল্পনা করছে সৌদি সরকার। দেশটির মানবসম্পদ ও সামাজিক উন্নয়ন মন্ত্রণালয় বিষয়টি বিবেচনা করছে বলে জানিয়েছে স্থানীয় সংবাদপত্র আল মদিনা।

এক টুইটার ব্যবহারকারীর প্রশ্নের জবাবে রোববার সৌদি আরবের মানবসম্পদ মন্ত্রণালয় জানায়, শ্রমব্যবস্থার মূল্যায়ন, কর্মসংস্থান বৃদ্ধি এবং বাজারকে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক বিনিয়োগকারীদের কাছে আরও আকর্ষণীয় করে তুলতে আইন সংশোধন করা হচ্ছে। মানবসম্পদ ও সামাজিক উন্নয়ন মন্ত্রণালয় জানায়, যেকোনও পরিবর্তনের ক্ষেত্রে দেশে কর্মসংস্থান বৃদ্ধির বিষয়টি বিবেচনায় নেওয়া হবে।

গালফ নিউজের খবরে বলা হয়, সৌদির মানবসম্পদ ও সামাজিক উন্নয়ন মন্ত্রণালয় চার দিন অফিস ও তিন দিন ছুটির পরিকল্পনা নিয়ে ভাবছে। এটি বাস্তবায়ন হলে দেশটিতে সপ্তাহে চার দিন অফিস আর বাকি তিন দিন ছুটি থাকবে। সৌদি আরবের বেশির ভাগ প্রতিষ্ঠানে সাপ্তাহিক ছুটি সাধারণত শুক্র ও শনিবার।

গত বছরের ১ জানুয়ারি থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাত নতুন নিয়মে অফিস শুরু করেছে। সোম থেকে বৃহস্পতিবার কার্যদিবস সকাল সাড়ে ৭টায় শুরু হয়ে বেলা সাড়ে ৩টায় শেষ হয়। শুক্রবারের কাজ শুরু হয় সাড়ে ৭টা থেকে; অফিস শেষ হয় দুপুর ১২টায়।

এক গবেষণায় দেখা গেছে, আমিরাতে নতুন কর্মসপ্তাহের কারণে সরকারি সংস্থাগুলোয় ৮৮ শতাংশ কর্মীর উৎপাদন-সক্ষমতা বেড়েছে।
এদিকে ওমানও তিন দিনের সাপ্তাহিক ছুটির কথা বিবেচনা করছে বলে জানা গেছে। দেশটির শ্রম মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা বলেন, ‘সিদ্ধান্তটি মন্ত্রী পরিষদের এখতিয়ারে পড়ে। প্রস্তাবটি আলোচনার জন্য উপস্থাপন করতে কোনো আপত্তি নেই।’

সুত্র–খবর গালফ নিউজ