উখিয়ায় রোহিঙ্গা শিবিরের দুষ্কৃতিকারীদের হামলা ; নিহত ৭

কক্সবাজার প্রতিনিধি : কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা শিবির ১৮’র একটি মাদ্রাসা ঘরে রোহিঙ্গা দুষ্কৃতিকারীর হামলায় ৭ জন নিহত হয়েছে। ঘটনাস্থলে ৪ জন এবং হাসপাতালে নেয়ার পর অপর তিনজন মারাযান বলে জানিয়েছেন ক্যাম্পে কর্মরত ৮ এপিবিএন উপ-অধিনায়ক কামরান হোসাইন এতথ্য নিশ্চিত করেন। প্রথমে দুই গ্রুপের গোলাগুলি ও সংঘর্ষের ঘটনা বলে মনে করা হলেও নিহত ও আহতদের অবস্থা দেখে এটি দুস্কৃতিকারি হামলা বলেই নিশ্চিত হন তারা, এমনটি দাবি করেছেন তিনি। শুক্রবার (২২ অক্টোবর) ভোর সোয়া ৪টার দিকে উখিয়ার এফডিএমএন ক্যাম্প-১৮ এইচ-৫২ ব্লকে অবস্থিত ‘দারুল উলুম নাদওয়াতুল ওলামা আল-ইসলামিয়াহ’ মাদ্রাসায় এ ঘটনা ঘটে। নিহতদের মাঝে ৪জন ঘটনাস্থলে আর বাকি তিনজন হাসপাতালে নেয়ার পর মারা যান।

নিহত রোহিঙ্গারা হলেন, এফডিএমএন ক্যাম্প-১৮ এইচ-৫২ ব্লকে অবস্থিত ‘দারুল উলুম নাদওয়াতুল ওলামা আল-ইসলামিয়াহ’ মাদ্রাসার শিক্ষক ক্যাম্প-১২, ব্লক-জে ৫ এর বাসিন্দা হাফেজ মোঃ ইদ্রীস (৩২), ক্যাম্প-৯’র ব্লক-২৯এর মৃত মুফতি হাবিবুল্লাহর ছেলে ইব্রাহীম হোসেন (২৪), ক্যাম্প-১৮, ব্লক-এইস-৫২’র ভলান্টিয়ার শিক্ষার্থী আজিজুল হক (২২), মো. আমীন (৩২) ঘটনাস্থলে মারাযান। আর হাসপাতালে মারা যাওয়ারা হলেন, এফডিএমএন ক্যাম্প-১৮, ব্লক-এফ-২২ মাদ্রাসার শিক্ষক নুর আলম ওরফে হালিম (৪৫) এফডিএমএন ক্যাম্প-২৪’র মাদ্রাসার শিক্ষক হামিদুল্লাহ (৫৫) ও ক্যাম্প-১৮, ব্লক- এইস ৫২’র মাদ্রাসার ছাত্র নুর কায়সার (১৫)।

৮ এবিপিএন এর উপ-অধিনায়ক (অতিরিক্ত পুলিশ সুপার) কামরান হোসাইন জানান, শুক্রবার ভোররাত আনুমানিক সোয়া ৪ টার দিকে এফডিএমএন ক্যাম্প-১৮ এইচ-৫২ ব্লকে অবস্থিত ‘দারুল উলুম নাদওয়াতুল ওলামা আল-ইসলামিয়াহ’ মাদ্রাসায় রোহিঙ্গা দুষ্কৃতিকারীরা হামলা চালায়। উক্ত হামলায় মাদ্রাসায় অবস্থানরত ৪ জন এফডিএমএন সদস্য মারা যায়। ঘটনা জানতে পেরে ময়নারঘোনা পুলিশ ক্যাম্প-১২ এর পুলিশ সদস্যরা তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনাস্থলে গিয়ে আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে প্রেরণ করে। হাসপাতালে নেয়ার পর আরও ৩ জন হাসপাতালে মারা যায়। এসময় পুলিশ মুজিব নামে হামলাকারীদের একজনকে অস্রসহ (একটি দেশীয় লোডেড ওয়ান শুটারগান, ৬ রাউন্ড গুলি ও একটি ছুরিসহ) হাতেনাতে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

তিনি আরো জানান, বৃহস্পতিবার দিনগত রাতে ময়নারঘোনা পুলিশ ক্যাম্প-১২ এর পুলিশ সদস্যরা ‘মদুতুল উম্মা’ মাদ্রাসা ও আশপাশের এলাকায় রাত আনুমানিক সোয়া ১২টা হতে ২টা ৪০ পর্যন্ত ব্লকরেইড পরিচালনা করে। অন্যান্য ক্যাম্প এলাকায়ও একই সাথে ব্লক রেইড পরিচালনা করা হয়। সকালে ঘটনাস্থলে উখিয়া থানা পুলিশ এসে লাশের সুরতহাল তৈরি করেছে। মরদেহ গুলো ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণের ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

উখিয়ার ১৮নং ক্যাম্পে কর্মরত ৮ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (৮ এবিপিএন) অধিনায়ক শিহাব কায়সার খান বলেন, কী কারণে এ ঘটবা তা এখনো স্পষ্ট নয়। আরো বেশ কয়েকজন আহতাবস্থায় এমএসএফ হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে। তিনি আরো বলেন, আমাদের সদস্যরা অস্ত্রসহ মুজিব নামে একজনকে আটক করেছে। ক্যাম্পের পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে আর ঘটনার বিস্তারিত জানতে প্রচেষ্টা চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *