জলাবদ্ধতার জেরে রাজধানীজুড়ে যানজট

নিজস্ব প্রতিবেদক : তিন ঘণ্টার টানা বৃষ্টিতে তলিয়ে গেছে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার সড়ক। কোথাও কোথাও জমেছে হাঁটু সমান পানি। ভারী বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতার কারণে সড়কে তৈরি হয়েছে যানজট। এতে ভোগান্তিতে পড়েছেন অফিসগামী যাত্রীসহ নানা শ্রেণিপেশার মানুষ।

মঙ্গলবার (১ জুন) সকাল ৬টা থেকে রাজধানীতে শুরু হয় মুষলধারে বৃষ্টি। এতে সড়কে পানি জমে যাওয়ায় উত্তরা-আব্দুল্লাহপুর অংশে যান চলাচল বিঘ্নিত হচ্ছে। কুড়িল বিশ্বরোড থেকে বনানী, গুলশানের বিভিন্ন সড়কেও বৃষ্টির পানি জমে যাওয়ায় যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। রাজধানীর অন্যান্য সড়কেও যানবাহন চলাচলে ধীরগতি দেখা গেছে।

সকাল সাড়ে আটটায় বিমানবন্দর সড়কের জিল্লুর রহমান উড়ালসেতুর কাছে দাঁড়িয়ে বাসের জন্য অপেক্ষারত সাদিকুল ইসলাম হিরু বলেন, রাস্তায় বাস কম। বাসের অপেক্ষায় আছি। বাসগুলো বিভিন্ন স্থানে আটকে আছে।

বিমানবন্দর সড়কের বিভিন্ন স্থানে পানি জমে থাকায় সকাল থেকেই এ সড়কে যান চলাচলে ধীরগতি রয়েছে। খিলক্ষেত থেকে কুড়িল ও বনানী এলাকা প্রায় এক ঘণ্টায় পার হন প্রাইভেটকার চালক শফিকুর রহমান। তিনি বলেন, বনানী সেতু ভবনের সামনে পানি থই থই করছে। এতে গাড়ি ধীরে চলায় যানজট তৈরি হয়েছে। যানজট পার হয়ে চলতে হচ্ছে।

আবহাওয়া অফিসের তথ্য অনুসারে, রাজধানীতে তিন ঘণ্টায় ৮৫ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে। তাতে তলিয়ে গেছে অধিকাংশ রাস্তা। বনানী, খিলক্ষেত ছাড়াও উত্তরা, কাজীপাড়া, মতিঝিল, মালিবাগ, রাজারবাগ, তেজগাঁও, মোহাম্মদপুর, মিরপুর-১২, মগবাজার, শান্তিনগর এলাকায় জলাবদ্ধতা ও যানজট সৃষ্টি হয়েছে।

ট্রাফিকের উত্তরা বিভাগের বিমানবন্দর জোনের কর্মকর্তা মো. আব্দুল্লাহ বলেন, বিমানবন্দর এলাকায় যান চলাচল স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা করা হচ্ছে। প্রচুর বৃষ্টিপাতের কারণে উত্তরা-আব্দুল্লাহপুর অংশে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। ফলে যান চলাচল কিছুটা ব্যাহত হচ্ছে। অন্যদিকে কুড়িল বিশ্বরোড থেকে গুলশানের দিকে যাতায়াতের রাস্তা যানজটে স্থবির রয়েছে। কুড়িল বাস স্ট্যান্ড ও রেডিসন হোটেলের আশপাশের রাস্তায় বৃষ্টির ফলে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। একদিকে যান চলাচল বন্ধ থাকায় এর প্রভাব বিমানবন্দর সড়কেও পড়ছে।

ট্রাফিকের গুলশান বিভাগের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার জাকির হোসেন বলেন, সকাল থেকে বৃষ্টিপাত হওয়ার কারণে বনানী থেকে বিমানবন্দর সড়কের বিভিন্ন অংশে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। ফলে এ সড়কে যান চলাচল প্রায় বন্ধ রয়েছে। কুড়িল ফ্লাইওভারের বনানী অংশের নিচে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। গাড়ি ফ্লাইওভার থেকে নামলেই পানিতে আটকে পড়ছে। আর এ কারণে বনানী থেকে বিমানবন্দর রাস্তার যান চলাচল প্রায় বন্ধ রয়েছে। এই যানজটের প্রভাব পুরো গুলশান এলাকায় পড়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *