২৬ নভেম্বর থেকে স্কুল শিক্ষার্থীদের টিকা কার্যক্রম শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক : সারাদেশে টিকা পাওয়ার উপযোগী এক কোটি ২০ লাখ শিক্ষার্থী আছে। ২৬ নভেম্বর থেকে জেলা পর্যায়ের এসব স্কুল শিক্ষার্থীদের টিকা দেয়ার কার্যক্রম শুরু হবে। প্রথম ধাপে ৪৭টি জেলা শহরে কেন্দ্র স্থাপন করে ১২-১৭ বছরের শিক্ষার্থীদের টিকা দেয়া হবে বলে জানিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর (মাউশি)।

এ বিষয়ে রবিবার (২১ নভেম্বর) মাউশির পরিচালক (কলেজ ও প্রশাসন) শাহেদুল খবির চৌধুরী বলেন, বর্তমানে মাধ্যমিক স্কুলের শিক্ষার্থীদের টিকাদান কার্যক্রম বন্ধ রেখে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের অগ্রাধিকারভিত্তিতে দেয়া হচ্ছে। ইতোমধ্যে ৩৫টি জেলার অধিকাংশ শিক্ষার্থীকে টিকা দেয়া হয়েছে। আগামী দুইএকদিনের মধ্যে এসব জেলার বাকিদের টিকাদান সম্পন্ন হবে।

তিনি বলেন, অন্যান্য জেলার এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের টিকা দিতে স্বাস্থ্য সুরক্ষা বিভাগ কাজ করছে। ২৫ নভেম্বর পর্যন্ত এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের টিকা কার্যক্রম শেষে সারাদেশের মাধ্যমিক পর্যায়ের ১২-১৭ বছরের শিক্ষার্থীদের টিকা প্রদান শুরু করা হবে। শুরুতে প্রতিটি জেলা শহরে কেন্দ্র করে টিকা দেয়া হবে। পর্যায়ক্রমে উপজেলা পর্যায়েও টিকা কেন্দ্র করা হবে।

জানা গেছে, দেশের ৩৫টি জেলা শহরে গত ১৫ নভেম্বর থেকে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের টিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে।২৫ নভেম্বর পর্যন্ত এ কার্যক্রম চলবে। এ পর্যন্ত দুই লাখ পাঁচ হাজার ৯৩১ জন এইচএসসি পরীক্ষার্থীকে করোনার টিকা দেয়া হয়েছে। এসব জেলায় আরো ৭০ হাজারের বেশি পরীক্ষার্থীর টিকাদান বাকি। আগামী দু-একদিনের মধ্যে তাদের টিকার আওতায় আনা হবে। বাকি জেলাগুলোতে টিকা কার্যক্রম দ্রুত সময়ে শুরু করা হবে।

সংশ্লিষ্টরা জানান, এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের মধ্যে অনেকের বয়স ১৭ বছরের মধ্যে থাকায় ইতোমধ্যে টিকা পেয়ে গেছে। যাদের বয়স ১৮ বছর তারা নিবন্ধন করে পরীক্ষার রেজিস্ট্রেশন কার্ড সঙ্গে নিয়ে কেন্দ্রে গিয়ে টিকা নিতে পারছে। আগামী ২৫ নভেম্বর পর্যন্ত তাদের টিকা কার্যক্রম চলবে। এরপর থেকে জেলা শহরে মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের টিকা কার্যক্রম শুরু হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *