১৭ হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ, রাগীব আহসান গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক : ১৭ হাজার কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে আলোচিত এহসান গ্রুপের চেয়ারম্যান রাগীব আহসানকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব।

শুক্রবার সকালে র‍্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার উপ-পরিচালক মেজর হুসাইন মোহাম্মদ রইসুল আজম মনি এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, পিরোজপুরের এহসান রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড বিল্ডার্স লিমিটেড প্রতারণার মাধ্যমে লক্ষাধিক গ্রাহকের কাছ থেকে ১৭ হাজার কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছে। এমন অভিযোগেই রাগীব আহসান ও তার সহযোগীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে কোথা থেকে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে তা জানাননি তিনি। বলেন, দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করে এ ব্যাপারে বিস্তারিত জানানো হবে।

এদিকে গ্রাহকের ১৭ হাজার কোটি টাকা আত্মসাতের ঘটনায় রবিবার সংবাদ সম্মেলন করেন ভুক্তভোগীরা। তাদের দাবি, এহসান রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড বিল্ডার্সের পক্ষে ব্যবস্থাপনা পরিচালক মুফতী রাগীব আহসান এলাকার মানুষের সঞ্চয়ী হিসাব চালু করেন। জমা করা টাকার ওপর মাসিক মুনাফা দেয়ার কথা বলে পাশ বইসহ বিভিন্ন ডকুমেন্ট দিয়ে টাকা জমা নেন। পিরোজপুর জেলাসহ এলাকার মানুষের কাছ থেকে টাকা নিয়ে কয়েকমাস মাসিক মুনাফা দেয়ার পর তা বন্ধ করে দেয়। এরপর নানান কথায় সময় পার করতে থাকেন।

এক পর্যায়ে ভুক্তভোগীরা টাকা ফেরত চাইলে নানা অজুহাতে টালবাহানা শুরু করে। এভাবে প্রায় তিন বছর চলার পর টাকা-পয়সা না দিয়ে প্রতিষ্ঠানটি বন্ধ করে দেয়। ২০১৯ সালে রাতের আঁধারে পিরোজপুর জেলার শের-ই-বাংলা পাবলিক লাইব্রেরির ৪র্থ তলায় এহসান গ্রুপের প্রধান অফিস তালাবদ্ধ করে দেয়। পরে জানা যায়, অফিস বন্ধের আগেই তারা অফিসের সব ডকুমেন্ট সরিয়ে ফেলে।

জানা গেছে, একসময় মসজিদে ইমামতি করতেন মাওলানা রাগীব। পরে ঢাকার একটি এমএলএম কোম্পানিতে কাজ নেন। সেই অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে তিনি গড়ে তোলেন এহসান গ্রুপ। তার তিন ভাই, বোন, তার শ্বশুর, বোন জামাইসহ নিকটাত্মীয়দের প্রতিষ্ঠানটির বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে বসান রাগীব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *