১৫ আগস্ট নিয়ে কটূক্তি করায় নুরকে যুবলীগের মারধর

নিজস্ব প্রতিবেদক : এবার নিজের শহরে হামলার শিকার হয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ভিপি নুরুল হক নুর। বুধবার বেলা ১১টার দিকে নিজ শহর পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলার উলানিয়া বাজারে হামলার শিকার হন তিনি। এ সময় নুরের সঙ্গে থাকা তার অন্তত ২৫ জন সঙ্গী আহত হয়েছেন। এছাড়াও নুরের বহরে থাকা ১০টি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয়েছে বলেও দাবি করা হয়েছে।

এদিকে জানা গেছে, ১৫ আগস্ট নিয়ে কটূক্তি করায় স্থানীয় যুবলীগের মারধরের শিকার হয়েছেন নুর। চর কাজলে উপজেলায় নিজের গ্রামের বাড়িতে ঈদুল আজহা পালন করেন নুর। আজ ঈদের তৃতীয় দিন মোটরসাইকেলের বহর নিয়ে দশমিনায় উপজেলায় খালার বাড়িতে যাচ্ছিলেন। পথে দশমিনা ও গলাচিপা উপজেলার সংযোগ সেতু উলানিয়া বন্দরে চা পান করতে থামেন তিনি।

চায়ের দোকানে বসে তিনি ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস নিয়ে কটূক্তি করেন। স্থানীয় যুবলীগের অভিযোগ, চায়ের দোকানে বসে নুর বলেন, ‘১৫ আগস্টে কেন এত গরু জবাই দিতে হবে? বাঙালিদের কেন খাওয়াতে হবে?’ এসব ইন্ডিয়া থেকে করানো হচ্ছে।

এসব নেতিবাচক কথাবার্তায় ক্ষুব্ধ হয়ে উলানিয়া বন্দর স্থানীয় যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও ইউনিয়ন পরিষদের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য জহির হাওলাদার নেতৃত্বে কর্মীরা ভিপি নুরের ওপর হামলা করে। হামলায় নুর ও তার কয়েক সঙ্গীকে মারধর করা হয়।

এ বিষয়ে গলাচিপা উপজেলার চেয়ারম্যান শাহিনশাহ জানান, নুরুকে স্থানীয়রা চিনতে পারে নাই। তিনি ১৫ আগস্ট নিয়ে কটূক্তি করায় যুবলীগের নেতাকর্মীরা ক্ষুব্ধ হয়ে তার ওপর হামলা করে। এতে তিনি আহত হয়েছেন।

এদিকে ঘটনার পর গলাচিপা থানা পুলিশ নুরকে উদ্ধার করে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে বাড়ি চলে যান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *