হাসপাতালে বেশিরভাগ করোনা রোগী গ্রামের

ঢাকা, ০৭ জুলাই : গ্রামের সাধারণ মানুষের মাঝে এক সময় ‘ধারণা’ ছিল যে, করোনা হচ্ছে শহরের রোগ। কিন্তু সেই ‘ধারণা’ এখন ভুল প্রমাণিত হয়েছে। স্বাস্থ্য অধিদফতরের মতে, জেলা সদরের হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীর অর্ধেকের বেশি গ্রামের। গ্রামে এখন ঘরে ঘরে ঠাণ্ডা এবং জ্বরে ভোগা রোগী আছেন। তাদের মাঝে যারাই টেস্ট করাচ্ছেন, পজিটিভ হচ্ছেন। আবার করোনার ভয়ে অনেকেই টেস্ট করাতে যাচ্ছেন না মৌসুমি জ্বর ও ঠাণ্ডা ভেবে। এদিকে রেকর্ডের পর রেকর্ড ভেঙে মঙ্গলবার (৬ জুলাই) একদিনে শনাক্ত হয়েছে সাড়ে ১১ হাজারের বেশি রোগী। গ্রামে গ্রামে ভারতীয় ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের সামাজিক সংক্রমণ হয়েছে বলে ধারণা সংশ্লিষ্টদের। অপরদিকে বেড়েছে মৃত্যুও।

স্বাস্থ্য অধিদফতর মঙ্গলবার (৬ জুলাই) জানায়, দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছে ১১ হাজার ৫২৫ জন এবং মারা গেছে ১৬৩ জন। বর্তমানে শনাক্তের হার ৩১ দশমিক ৪৬ শতাংশ। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি রোগী ঢাকা বিভাগে। ঢাকা শহরসহ এ বিভাগের ১৩টি জেলায় ২৪ ঘণ্টায় (মঙ্গলবার) শনাক্ত হয়েছে ৫ হাজার ৯৭ জন। এর মধ্যে শুধু ঢাকা জেলাতেই শনাক্ত হন ৩ হাজার ৭১৫ জন। গত ৭ দিনে ক্রমান্বয়ে রোগী বাড়ছে ঢাকায়। পাশপাশি সারাদেশেও উল্লেখযোগ্য হারে বাড়ছে রোগী। ঢাকায় বর্তমানে সংক্রমণের হার ৩১ শতাংশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *