স্পেনে ভয়াবহ দাবানল, ঘরবাড়ি ছেড়েছে হাজারো মানুষ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : স্পেনের দক্ষিণাঞ্চলে অবস্থিত আন্দালুসিয়া এলাকায় ভয়াবহ দাবানল ছড়িয়ে পড়ায় সে এলাকার কমপক্ষে ২ হাজার মানুষ বাড়িঘর ছেড়ে নিরাপদ জায়গায় আশ্রয় নিয়েছেন। আগুনে একজন জরুরি কর্মী নিহত হয়েছেন। গত বুধবার এই আগুন শুরু হয়। সূত্র: বিবিসি।

এই আগুন ছড়িয়ে পড়েছে পার্বত্য অঞ্চলে। সেখানে আগুন নিয়ন্ত্রণে অগ্নিনির্বাপণ কর্মীদের সহায়তা করার জন্য একটি সামরিক ইউনিট মোতায়েন করেছে স্পেন সরকার। স্থানীয় সময় রবিবার আরও ছয়টি শহর ও গ্রাম থেকে মানুষদের নিরাপদ জায়গায় সরিয়ে নেয়া হয়। এর আগে গত শুক্রবার ছয়টি সম্প্রদায়ের মানুষকে বাড়িঘর ছাড়তে বলা হয়। বহুদূর থেকে এই আগুনের কুণ্ডলি দেখা যাচ্ছে।

স্প্যানিশ মিডিয়ার তথ্য অনুযায়ী, এই দাবানলে এখন পর্যন্ত প্রায় ৭ হাজার ৪০০ হেক্টর জমি পুড়েছে। আন্দালুসিয়ার আঞ্চলিক অগ্নি সংস্থা বলেছে, আগুন নিয়ন্ত্রণের জন্য শত শত অগ্নিনির্বাপণকর্মী কাজ করছেন। মোট ৪১টি এয়ারক্রাফট ও ২৫টি গাড়ি এই কাজে সহায়তা করছে।

আঞ্চলিক ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র কর্মকর্তা হুয়ান সানচেজ বলেছেন, সাম্প্রতিক সময়ে এমন ‘অধিক জটিল’ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা দেখানো যায়নি।

আগুন থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য ঘরবাড়ি ছেড়েছেন এমন একজন বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেছেন, ‘এটি অমানবিক। এর আগে এমন ঘটনা দেখা যায়নি। আগুনের শিখা যেভাবে ছড়িয়ে পড়ছে তা আশ্বর্যজনক।’

অপর একজন বলেছেন, ‘যেদিন থেকে আগুন লেগেছে সেদিন থেকে আমরা কোনো রাতে ঘুমাতে পারিনি।’

এই গ্রীষ্মে ইউরোপে কয়েকটি দাবানলের ঘটনা ঘটেছে।

বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, জলবায়ু পরিবর্তন দাবানলের ঘটনাকে বাড়িয়ে দিচ্ছে। শিল্প বিপ্লবের পর থেকে এখন পর্যন্ত বিশ্বের তাপমাত্রা প্রায় ১.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস বেড়েছে। বিশ্ব যদি কার্বন নির্গমনের পরিমাণ না কমাতে পারে তাহলে তাপমাত্রা আরও বাড়বে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *