রেজা কিবরিয়া-নুরুল হকের নতুন মিশন

নিজস্ব প্রতিবেদক : আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে ‘রাজনৈতিক নানা মেরুকরণের’ মধ্যে নতুন আরেকটি রাজনৈতিক দলের আত্মপ্রকাশ ঘটতে যাচ্ছে। ডানপন্থি নয়, বামপন্থিও নয়; ‘মধ্যপন্থি’ দল হিসেবে ‘জনতার অধিকার আমাদের অধিকার’ স্লোগান নিয়ে নতুন দলের দুটি নাম প্রস্তাবনা রয়েছে। এর মধ্যে দলের খসড়া গঠনতন্ত্র চূড়ান্ত করা হয়েছে। উদ্যোক্তারা জানিয়েছেন, শিগগিরই নতুন দলটির ‘আহ্বায়ক কমিটি’র আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হবে।

উদ্যোক্তাদের অন্যতম হলেন ড. রেজা কিবরিয়া এবং ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক। আহ্বায়ক কমিটি হচ্ছেÑ এটা এক প্রকার চূড়ান্ত। নতুন দলের আহ্বায়ক হচ্ছেন ড. রেজা কিবরিয়া এবং সদস্য সচিব হচ্ছেন নুরুল হক।

অক্সফোর্ডে ডক্টরেট করা রেজা কিবরিয়া ২০১৮ সালে আইএমএফের গুরুত্বপূর্ণ চাকরি ছেড়ে ওয়াশিংটন থেকে দেশে ফেরেন। তার মূল পরিচয় অর্থনীতিবিদ হলেও নির্বাচনের আগের ওই সময়টাতে তিনি গণফোরামে যোগদান করে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করে আলোচনায় আসেন। পরে গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে তিনি সক্রিয় রাজনীতিতে অংশ নেন। গত ৭ ফেব্রুয়ারি তিনি গণফোরাম থেকে পদত্যাগ করেন। এরপর কয়েক মাস ধরে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর অংশগ্রহণে বিভিন্ন কর্মসূচিতে অংশ নেওয়ার পাশাপাশি এবি পার্টি ও নুরুল হকদের ‘ছাত্র অধিকার’ বিভিন্ন কর্মসূচিতে তাকে সক্রিয় দেখা যায়। নতুন মিশন এবং কিছু স্বপ্ন নিয়ে তিনি নতুন একটি রাজনৈতিক দলকে নিয়ে সামনের দিকে এগোতে চাচ্ছেন।

জানা গেছে, চলতি মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে নতুন দলের আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হতে পারে। একটি বড় ‘সমাবেশ’ করে দায়িত্বশীল নেতারা নতুন দলের ঘোষণা দিতে পারেন। তারা সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সামবেশ করার অনুমতি চেয়েছেন। এখানে অনুমতি না পাওয়া গেলে জাতীয় প্রেস ক্লাবে একটি বড় অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে নতুন দলের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হবে।

দায়িত্বশীল নেতারা জানান, ‘জনতার অধিকার আমাদের অধিকার’ এই স্লোগান নিয়ে দলের দুটি নাম প্রস্তাবনায় রয়েছে। নাম দুটি হলো- ‘বাংলাদেশ অধিকার পার্টি (বিআরপি)’ এবং ‘গণ-অধিকার পরিষদ’। বিআরপি নামটিই শেষ পর্যন্ত চূড়ান্ত করা হতে পারে। আপাতত আহ্বায়ক কমিটি হচ্ছে। যাতে পরে নতুন করে যে কেউ দলে অন্তর্ভুক্ত হতে পারেন। তবে গুরুত্বপূর্ণ নেতার সংখ্যার ওপর নির্ভর করে কমিটির আকার হবে। নতুন দলে কারা অন্তর্ভুক্ত হতে যাচ্ছেন তা এখনই প্রকাশ করতে চাচ্ছেন না তারা। সাবেক বিচারপতি ও জজ-ব্যারিস্টারসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি নতুন দলে অন্তর্ভুক্ত হবেন বলেও জানা গেছে।

উদ্যোক্তারা জানান, বিএনপির একজন সিনিয়র সদস্য ও নির্বাহী কমিটির এক সদস্যসহ অনেকেই নতুন দলে আসার জন্য দায়িত্বপ্রাপ্তদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন। তারা আরও জানান, তারা ডান কিংবা বাম রাজনৈতিক দল হতে চান না। সবাইকে নিয়ে তারা রাজনীতি করতে চান। গণতান্ত্রিক ঐক্য গড়তে নিবন্ধিত ও অনিবন্ধিত সব রাজনৈতিক দলের সঙ্গেও বসতে চান তারা।

নতুন দল গঠন প্রসঙ্গে জানতে চাইলে গতকাল রোববার ড. রেজা কিবরিয়া বলেন, ‘খুবই শিগগিরই নতুন দলের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসবে। আমরা আর দেরি করতে চাচ্ছি না। দলের গঠনতন্ত্র তৈরির কাজ চূড়ান্ত করা হচ্ছে।’ তিনি বলেন, ‘আমরা ৩০০ আসনেই প্রার্থী দেওয়ার চেষ্টা করব। আমরা সবাইকে নিয়েই নির্বাচন করতে চাই। কোনো আসনে যদি ঐক্যবদ্ধভাবে প্রার্থী দিতে হয়, তাই করা হবে।’

তিনি বলেন, ‘চ্যালেঞ্জ আছে। সব চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করেই এগিয়ে যেতে হবে। আমার বাবাকে দেখেছি কীভাবে মানুষের সঙ্গে মিশেছেন। তাকেও নির্মমতার শিকার হয়ে চলে যাতে হয়েছে। এসব মাথায় রেখেই সব ধরনের মানসিক প্রস্তুতি আছে। দেশের মানুষকে দেখাতে হবে আন্দোলন করে দাবি আদায় করতে পারব। দেশ পরিচালনা করতে পারব কিনা এটা দেখাতে হবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘অন্য দলের সম্পর্কটা হবে পরিস্থিতির ওপর। প্রথম দরকার একটা সুষ্ঠু নির্বাচন। আমরা আসল একটা নির্বাচন চাই।’

এই অর্থনীতিবিদ বলেন, সুষ্ঠু নির্বাচন হলে জনগণ আমাদের ভোট দেবে। বড় ঐক্য গড়ে তুলতে হবে। দেশ-বিদেশে আমাদের শুভাকাক্সক্ষী আছে। অনেকেই আমাদের দলে যোগ দেবেন, সাড়া পাচ্ছি। প্রচুর রেসপন্স আছে।’ জনগণের কাছে আওয়ামী লীগের কোনো গ্রহণযোগ্যতা নেই বলেও মনে করেন তিনি।

নতুন দলের অন্যতম উদ্যোক্তা নুরুল হক দৈনিক খোলা কাগজকে বলেন, ‘আমরা চূড়ান্ত পর্যায়ে চলে আসছি। বড় একটি সমাবেশের মধ্য দিয়ে নতুন দলের ঘোষণা দিতে চাই। খুব শিগগিরই ঘোষণা হবে।’

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘তারিখটা বলতে চাচ্ছি না। তবে আগামী কয়েক দিনের মধ্যেই ঘোষণা দেওয়া হবে। দলের খসড়া গঠনতন্ত্র তৈরি করা হয়েছে। আপাতত আহ্বায়ক কমিটির ঘোষণা আসবে; যাতে পরে কেউ যোগ দিলে দলে অন্তর্ভুক্ত হতে পারেন।’

তিনি বলেন, ‘আমরা যদি বড় কোনো স্থানে সমাবেশের অনুমতি না পাই, তাহলে জাতীয় প্রেস ক্লাবে একটি বড় অনুষ্ঠান করে নতুন কমিটির ঘোষণা দেব।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *