মণিরামপুরের ভূমি অফিসের অফিস সহকারীর বিরুদ্ধে প্রতারণা মামলা, তদন্তে পিবিআই

যশোর অফিস : মণিরামপুর ভূমি অফিসের অফিস সহকারী লুৎফর রহমানের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগে দায়ের করা মামলা তদন্তের জন্য পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। বুধবার মামলার আদেশের জন্য ধার্য তারিখে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মঞ্জুরুল ইসলাম আগামী ২৮ অক্টোবরের মধ্যে অভিযোগের বিষয় তদন্তে করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য নির্দেশ দেন। এরআগে গত ২৫ মার্চ আদালতে মামলাটি করেন মণিরামপুর উপজেলার মুক্তারপুর গ্রামের মৃত নওশের আলী গাজীর ছেলে রহিম গাজী। করোনা পরিস্থিতিতে আদালতের স্বাভাবিক কার্যক্রম বন্ধ থাকায় মামলাটি আদেশের অপেক্ষায় ছিলো।
মামলায় বাদী উল্লেখ করেন, ৫ বছর আগে মণিরামপুর উপজেলার মুক্তারপুর মৌজায় ৩৪৫ দাগে ৯০ শতক জমির মধ্যে ১৭ শতক নামজারী এবং ১০ শতক খাস জমির বন্দবস্ত করে দেয়ার কথা বলে লুৎফর। এজন্য তাকে এলালাখ ২০ হাজার টাকা দিতে হবে বলে জানায় লুৎফর। ওইসময় লুৎফর মণিরামপুরের খাটুরা তহশীল অফিসে অফিস সহকারী হিসেবে কর্মরত ছিলেন তিনি। একপর্যায় তাদের মধ্যে চুক্তি হয়।
চুক্তি অনুযায়ী বাদীর কাছ থেকে আসামি একলাখ ১৯ হাজার ৬শ’ টাকা নেন। কিন্তু চুক্তি অনুযায়ী ওই কাজ না করে ঘুরাইতে থাকে লুৎফর। বিষয়টি নিয়ে ২০২০ সালের ২৮ অক্টোবর সহকারী কমিশনার ভূমি মণিরামপুর বরাবর লিখিত অভিযোগ দেন। কিন্তু কর্তৃপক্ষ বিষয়টি নিয়ে ব্যবস্থা নেয়নি। সর্বশেষ গত ২৩ মার্চ বাদী আসামির কাছে টাকা ফেরত চাইলে বাদীকে লুৎফর বলে ‘ওই টাকা ফেরত দেয়া হবেনা পারলে কিছু করিস।’ বাধ্য হয়ে বাদী চলতি বছরের ২৫ মার্চ আদালতে এ মামলা করেন। ওই মামলার আজ আদেশের দিন ছিলো। আদালত পিবিআইকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য নির্দেশ দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *