ভারতের ‘ঝুঁকিপূর্ণ’ দেশের তালিকায় বাংলাদেশ

গ্রামের সংবাদ ডেস্ক : করোনার নতুন ধরন ‘ওমিক্রন’ সংক্রমণ নিয়ে ১২টি দেশকে অন্তর্ভুক্ত করে উচ্চ ঝুঁকির একটি তালিকা তৈরি করেছে ভারত। সেই তালিকায় বাংলাদেশের নাম রয়েছে। এসব দেশ থেকে ভারতে যাওয়া নাগরিকদের নয়াদিল্লির আইজিআই বিমানবন্দরে করোনার আরটি-পিসিআর পরীক্ষা করা হবে। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

ভারতের এ তালিকায় থাকা দেশগুলো হলো বাংলাদেশ, যুক্তরাজ্য, দক্ষিণ আফ্রিকা, ব্রাজিল, বতসোয়ানা, চীন, মরিশাস, নিউজিল্যান্ড, জিম্বাবুয়ে, সিঙ্গাপুর, হংকং ও ইসরাইল। করোনার নতুন ধরন অমিক্রন নিয়ে বিশ্বজুড়ে উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়ার প্রেক্ষাপটে ভারত এ উদ্যোগ নিয়েছে।

এসব দেশের মধ্যে অমিক্রন সংক্রমণের ‘হটস্পট’ (কেন্দ্র) দক্ষিণ আফ্রিকা, জিম্বাবুয়ে ও হংকং থেকে ভারতে আসা উড়োজাহাজের যাত্রীদের নয়াদিল্লির বিমানবন্দরে করোনা পরীক্ষার ফলাফল পাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। পরীক্ষায় নেগেটিভ ফলাফল আসা ব্যক্তিরাই কেবল বিমানবন্দর থেকে গন্তব্যে যাওয়ার অনুমতি পাবেন।

এ ছাড়া বাকি ৯ দেশ থেকে আসা ব্যক্তিরা করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা দিয়ে বিমানবন্দর ত্যাগ করার অনুমতি পাবেন। পরে তাদের ফলাফল জানিয়ে দেয়া হবে। ফলাফল পজিটিভ বা নেগেটিভ হলে তাদের বিষয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে, করোনাভাইরাসের ওমিক্রন ধরন প্রতিরোধে এসব পদক্ষেপ নিয়েছে ভারত। দীর্ঘ ২০ মাসেরও বেশি সময় পর গত ২৬ নভেম্বর আন্তর্জাতিক বাণিজ্যিক ফ্লাইট ফের শুরুর ঘোষণা দিয়েছিল ভারতীয় প্রশাসন। ১৫ ডিসেম্বর থেকে এসব ফ্লাইট চলাচল স্বাভাবিক হওয়ার কথা ছিল। বর্তমানে দ্বিপাক্ষিক এয়ার বাবল চুক্তির আওতায় বাংলাদেশসহ কয়েকটি দেশের সঙ্গে সীমিত সংখ্যক ফ্লাইট চালু রয়েছে ভারতের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *