বেনাপোলে দুই সহোদরকে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম

স্টাফ রিপোর্টার : বেনাপোল পোর্ট থানার রঘুনাথপুর গ্রামে দু’পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ইয়ার আলীর পক্ষ দুই সহোদরকে কুপিয়ে রক্তাক্ত যখম করেছে। আহতদের অবস্থা আশঙ্কাজনক। প্রথমে তাদের যশোর জেনারেল হাসপাতালে পরে অবস্থার অবনতি হলে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তবে গ্রামবাসী সন্ত্রাসী ইয়ার আলীকে গনধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টার সময় বেনাপোল পোর্ট থানার রঘুনাথপুর গ্রামে দুই পক্ষের মধ্যে তর্ক বিতর্কের এক পর্যায়ে সন্ত্রাসী ইয়ার আলী ও তার লোকজন দুই সহোদর শওকত হোসেন ও শফিক হোসেনকে কুপিয়ে জখম করে। শওকত ও শফিক ওই গ্রামের আলীর ছেলে। অভিযুক্ত ইয়ার আলী একই গ্রামের মোজাম মল্লিকের ছেলে।

গ্রামবাসি জানান, সকালে শওকত ও শফিক দুই ভাই মিলে ধানের ক্ষেতে কাজ করছিলেন। এ সময় তর্কা তর্কির এক পর্যায়ে ইয়ার আলীসহ কয়েকজন ধারালো অস্ত্র নিয়ে তাদের কুপিয়ে জখম করেন। খবর পেয়ে তাদের পরিবার মাঠ থেকে শওকত ও শফিককে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠান। এরপর গ্রামবাসী ইয়ার আলীকে ধরে গনধোলায় দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে।
আহতের চাচা আমীর হোসেন বলেন, ইয়ার আলী এলাকায় একজন চিহিৃত মাদক ব্যবসায়ি। সে ইয়াবা, গাজা ও ফেনসিডিলের ব্যবসা করে থাকে।

বেনাপোল পোর্ট থানার ওসি আলমগীর হোসেন বলেন, আহত দুই ভাইকে উদ্ধার করে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। তবে তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে তিনি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *