বুধবার ছেঁউড়িয়ায় লালন স্মরণোৎসব শুরু

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি : কুষ্টিয়ার ছেঁউড়িয়ার লালন আখড়াবাড়িতে বুধবার থেকে শুরু হচ্ছে তিন দিনব্যাপী লালন স্মরণোৎসব। সেই সঙ্গে বসবে গ্রামীণ মেলা।

দোল পূর্ণিমার রাতে আনুষ্ঠানিভাবে বাউল সম্রাট ফকির লালন শাহের মাজারে তিন দিনব্যাপী স্মরণোৎসবের উদ্বোধন করা হবে। এ স্মরণোৎসবকে কেন্দ্র করে দেশি ও বিদেশি লাখো ভক্তদের আগমন হবে লালন আখড়াবাড়িতে।

এবারের আয়োজনে মরমী সাধক বাউল সম্রাট ফকির লালন সাঁইজির অমর বাণী ‘মনের গরল যাবে যখন, সুধাময় সব দেখবি তখন’- প্রতিপাদ্যে সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয় ও কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় লালন একাডেমির আয়োজনে এ লালন স্মরণোৎসব হবে।

বুধবার সন্ধ্যায় আনুষ্ঠানিক তিন দিনব্যাপী স্মরণোৎসব ও গ্রামীণ মেলা চলবে শুক্রবার পর্যন্ত।

প্রথম দিনে কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক আসলাম হোসেনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে স্মরণোৎসবের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী।

আলোচনা সভা শেষে মঞ্চে শুরু হবে বহুল প্রতিক্ষিত লালন সঙ্গীত। যা গাইবেন লালন একাডেমির শিল্পীরা ছাড়াও দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আগত খ্যাতনামা বাউল শিল্পী ও ভক্তবৃন্দ।

বাউল সম্রাট লালন শাহের জীবদ্দশায় চৈত্র মাসের প্রথম সপ্তাহে পূর্ণিমার রাতে দোলপূর্ণিমার উৎসব পালন করা হতো। সেই থেকে লালন ভক্তরা প্রতি বছরই তাদের কাঙ্ক্ষিত এই উৎসব পালন করে থাকেন।

জেলা প্রশাসক আসলাম হোসেন বলেন, ‘লালন স্মরণোৎসব ও গ্রামীণ মেলাকে কেন্দ্র করে মাজার প্রাঙ্গণ ও তার আশপাশের এলাকায় নিরাপত্তাব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। পুরো মাজার এলাকা সিসি ক্যামেরার আওতায় থাকবে। জেলা পুলিশ, র‌্যাব, গোয়েন্দা পুলিশের পাশাপাশি সাদা পোশাকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন থাকবে। সেই সঙ্গে আমাদের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা সেখানে দায়িত্বে থাকবেন।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *