বাড়ি থেকে কাজ, সারা দিন চলছে ওয়াইফাই, কতটা ক্ষতি হচ্ছে শরীরের?

গ্রামের সংবাদ ডেস্ক : করোনার কারণে অনেকেই বাড়ি থেকে কাজ করতে বাধ্য হচ্ছেন। আর তাতে বেড়েছে ইন্টারনেটের ব্যবহার। সব সময় ইন্টারনেট ব্যবহারের জন্য অনেকেই ব্যবহার করেন ওয়াইফাই রাউটার। তা থেকে তরঙ্গের মাধ্যমে ইন্টারনেট পৌঁছে যায় কম্পিউটার বা ফোনে। এই ওয়াইফাই তরঙ্গের মধ্যে সারা দিন কাটানোটা আদৌ নিরাপদ কি? অনেকে রাতেও বন্ধ করেন না এই রাউটার। সেটাও কি স্বাস্থ্যকর?

বৈদ্যুতিন যন্ত্র থেকে দু’ধরনের বিকিরণ হয়। ‘আয়নাইজিং’ এবং ‘নন-আয়নাইজিং’। মাইক্রওয়েভের মতো যন্ত্রে ব্যবহার করা হয় প্রথমটি। আর ওয়াইফাই, ব্লুটুথ যন্ত্রের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয় দ্বিতীয়টি। দ্বিতীয়টি সে ভাবে শরীরের ক্ষতি করে না বলেই দাবি করে এসেছেন বিজ্ঞানীরা।

যদিও হালে জার্মানির ‘ফেডেরাল অফিস ফর রেডিয়েশন প্রোটেকশন’ সাবধান করছে দ্বিতীয় ধরনের বিকিরণ নিয়েও। বলা হচ্ছে, ওয়াইফাই-এর সিগন্যালের মধ্যে নিরন্তর বাস করলে তার কুপ্রভাব পড়তে পারে শরীরে। মস্তিষ্কের কোষে তার প্রভাব পড়তে পারে। এমনকি ডিএনএ-র গড়নেও বদল আসতে পারে।

এই তরঙ্গের কুপ্রভাব থেকে বাঁচতে কতগুলি পরামর্শও দেওয়া হয়েছে জার্মানির ‘ফেডেরাল অফিস ফর রেডিয়েশন প্রোটেকশন’-এ তরফে। সেগুলি হল:

ঘুমানোর সময় অবশ্যই ওয়াইফাই রাউটার বন্ধ করে দিন।
যখন ব্যবহার করছেন না তখন ব্লুটুথ স্পিকার বা রাউটার বন্ধ রাখুন।
ইন্টারনেটের প্রয়োজন না থাকলে সেই সময়ে ওয়াইফাই তো বটেই ফোনের ডেটা-ও বন্ধ করে দিন।
যদি সম্ভব হয়, ওয়াইফাই ব্যবহার না করে তারের মাধ্যমে ইন্টারনেট পরিষেবা ব্যবহার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *