ট্রাকের আয়নায় ঘটনা দেখে ৯৯৯-এ কল, অতপর…আটক

গ্রামের সংবাদ ডেস্ক : ঢাকা থেকে উত্তরবঙ্গগামী একটি চলন্ত ট্রাকে মানসিক প্রতিবন্ধী (২০) এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে ট্রাকটির চালক ও তার সহকারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

গ্রেফতার ব্যক্তিরা হলেন ট্রাক চালক বগুড়া জেলা সদরের আশুখোলা গ্রামের মনসুর আলীর ছেলে সোহেল রানা (৩২) এবং চালকের সহকারী একই জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার জহুরুল শেখের ছেলে ওয়াবাহ শেখ (৩০)।

পুলিশ জানিয়েছে, মঙ্গলবার (২২ জুন) বিকেলে উত্তরবঙ্গগামী ওই ট্রাকে গাজীপুরের চন্দ্রা এলাকা থেকে দুই তরুণ পেছনে ওঠেন। এর কিছুক্ষণ পরই এক ব্যক্তি ওই তরুণীকে ট্রাকে তুলে দিয়ে সিরাজগঞ্জের চান্দাইকোনায় নামিয়ে দিতে বলেন। সে সময় ওই ব্যক্তি ট্রাকটির চালক ও সহকারীকে জানান, ওই তরুণীর মানসিক সমস্যা আছে। তখন চালক ও তার সহকারী ওই তরুণীকে সামনে চালকের পাশের আসনেই বসতে দেন। পথে টাঙ্গাইলের এলেঙ্গায় যাত্রাবিরতি নেয় ট্রাকটি। তখন পেছনে থাকা দুই যাত্রীকে কোনো কাজ থাকলে সেরে নিতে বলেন চালক। এ সময় তাদের একজনের চোখ ট্রাকটির সামনে থাকা লুকিং গ্লাসের (আয়না) ওপর পড়লে দেখতে পান, চালক ও তার সহকারী ওই তরুণীকে যৌন নির্যাতন করছেন।

ওই তরুণ বিষয়টি তার মুঠোফোনে ভিডিও করার চেষ্টা করলে চালক বুঝতে পেরে তাদের দ্রুত নামিয়ে দিয়েই ট্রাকটি নিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন। তখন ওই তরুণ সঙ্গে সঙ্গে ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে বিষয়টি জানান। সেখান থেকে ঘটনাটি সিরাজগঞ্জ পুলিশসহ ট্রাফিক ও হাইওয়ে পুলিশকে জানানো হয়। এরপর পুলিশ তল্লাশিচৌকি বসিয়ে সন্ধ্যায় বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম গোলচত্বর এলাকায় ট্রাকটিকে থামতে সংকেত দিলে সংকেত না মেনেই সেটি যেতে শুরু করলে কড্ডার মোড় এলাকা থেকে চালকসহ ট্রাকটি আটক করা হয়। সে সময় চালকের সহকারী দৌড়ে পালিয় গেলেও রাতেই তাকে আটক করা হয়।

বঙ্গবন্ধু পশ্চিম থানার ওসি মোসাদ্দেক হোসেন জানান, নির্যাতিত তরুণীর বাবা বাদী হয়ে মঙ্গলবার রাতেই মামলা করেছেন। আসামিরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছেন। আদালত তাদের জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *