খালে গোসলে নেমে প্রাণ গেল ৩ স্কুলছাত্রীর

গাজীপুর প্রতিনিধি : গাজীপুর সদর উপজেলায় একটি খালে গোসল করতে নেমে তিন ছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) বিকেলে উপজেলার ভাওয়াল মির্জাপুর উত্তর পানশাইল এলাকা থেকে নিখোঁজ দুই ছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়াও শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরেক ছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় নিখোঁজ রয়েছে আরও একজন। ঘটনাস্থলে উদ্ধার তৎপরতা শুরু করেছে ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের কর্মী।

নিহতরা হলো পাইনশাইল এলাকার সোলেমানের মেয়ে রিচি আক্তার। সে ভাওয়াল মির্জাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী। হায়েত আলীর মেয়ে আইরিন। সে গাছপুকুর পাড় দাখিল মাদ্রাসার ছাত্রী এবং মো. মঞ্জু হোসেনের মেয়ে মায়া আক্তার। সে মির্জাপুর হাজী জমির উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের অস্টম শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

নিখোঁজ রিয়া আক্তার স্থানীয় সোলেমানের ছোট মেয়ে। সে নিহত বড়বোন রিচির সঙ্গে একই মাদ্রাসার তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয়রা জানায়, সদর উপজেলার পাইনশাইল উত্তরপাড়া এলাকায় আজ দুপুর ১টার দিকে প্রতিবেশী পাঁচ শিক্ষার্থী তুরাগ নদীতে গোসল করতে যায়। এ সময় এক ছাত্রী পানির স্রোতে তলিয়ে গেলে তাকে বাঁচাতে অপর ছাত্রীরা এগিয়ে যায়। এরপর পর্যায়ক্রমে চারজন ছাত্রী পানিতে ডুবে যায়। অপর শিক্ষার্থী সাঁতরে তীরে উঠে ঘটনাটি স্থানীয় লোকজন ও স্বজনদের জানায়। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার তৎপরতার এক পর্যায়ে তুরাগ নদী থেকে রিচি আক্তারের মরদেহ উদ্ধার করে শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। ঘটনার পর গাজীপুর ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরিদল উদ্ধার তৎপরতা শুরু করে। এরপর পৌনে ৪টার দিকে নিখোঁজ আইরিন ও মায়ার মরদেহ উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিস। তবে এখনও শিশু রিয়ার খোঁজ পায়নি ফায়ার সার্ভিস।

ঘটনাস্থলে জয়দেবপুর থানা পুলিশ ও প্রশাসনের কর্মকর্তা উপস্থিত রয়েছেন।

জয়দেবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহতাব উদ্দিন জানান, বিকেল পর্যন্ত তিন ছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। নিখোঁজ একজনের সন্ধানে ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ তৎপর রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *