কাব্যের মাধ্যমে সকল ধর্ম বর্ণ ও সম্প্রদায়ের মধ্যে সম্প্রতি সৃষ্টি হোক-কবি নির্মলেন্দু গুণ

যশোর প্রতিনিধি : কাব্যসেবীরা বিধাতার বিশেষ আর্শীবাদ পুষ্ট মানুষ ও মানবসন্তান উল্লেখ করে দেশ বরণ্যে কবি নির্মলেন্দু গুণ বলেছেন, কাব্যের মাধ্যমে সকল ধর্ম বর্ণ ও সম্প্রদায়ের মধ্যে সম্প্রতি সৃষ্টি হোক। দেশ ও সমাজের উন্নয়ন হোক। শুক্রবার (৩০ জুলাই) বিকালে বিদ্রোহী সাহিত্য পরিষদ (বিএসপি) আয়োজিত দুইদিন ব্যাপী আন্তর্জাতিক কবিতা উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে তিনি এসব কথা বলেন।
সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি কবি কাজী রকিবুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য দেন বিএসপির সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা মুন্না।
এরপর শুরু হয় বিষয় ভিত্তিক আলোচনা ও কবিতা পাঠ। কবিতার রূপ, স্বরূপ ও কবিতার বিচরণ বিষয়ে বক্তব্য রাখেন কবি ও গবেষক প্রফেসর মো. আব্দুল মান্নান (বাংলাদেশ), লেখক ও গবেষক ড. মীরাতুন নাহার (ভারত) কবি ও প্রাবন্ধিক ফকির ইলিয়াস (আমেরিকা). কবি ও গবেষক বেনজিন খান (বাংলাদেশ) ।
বাংলা কবিতায় একুশ এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিষয়ে বক্তব্য রাখেন কবি ও গবেষক প্রফেসর অনীক মাহমুদ (বাংলাদেশ ), কবি ও প্রাবন্ধিক মাহমুদ কামাল (বাংলাদেশ), কথা সাহিত্যিক রোকেয়া ইসলাম (বাংলাদেশ), কবি ও গবেষক ড. শাহনাজ পারভীন (বাংলাদেশ)।
কবিতার আঙ্গিক উদ্ভাবন (স্বদেশ ও বিদেশ) বিষয়ে বক্তব্য রাখেন কবি ও প্রাবন্ধিক আনোয়ার কামাল (বাংলাদেশ)
উৎসবের প্রথম দিনে বাংলাদেশ, ভারত, অস্ট্রেলিয়া, আমেরিকাসহ ৭ টি দেশের কবিরা কবিতা পাঠ করেন।
বিকাল ৫ টা থেকে কবিতা উৎসব শুরু হয়ে রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত শুরু চলা এ অনুষ্ঠান সমগ্র উপস্থাপন করেন নূরজাহান আরা নীতি, রবিউল হাসনাত সজল,সোনিয়া সুলতানা চাঁপা এবং মোস্তাফিজুর রহমান।
আন্তর্জাতিক কবিতা উৎসবের মিডিয়া পার্টনার হিসেবে রয়েছে সুপ্রভাত সিডনি (অস্ট্রেলিয়া), বাংলা ভিশন ডিজিটাল (বাংলাদেশ), স্বাধীন আলো ডট কম (বাংলাদেশ) ও বহুমাত্রিক ডট কম (বাংলাদেশ)।
আজ শনিবার (৩১ জুলাই) বিকাল ৫ টায় উৎসবের দ্বিতীয় এবং সমাপনী অনুষ্ঠান শুরু হবে। সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন একুশে পদকপ্রাপ্ত আবৃত্তি শিল্পী ড. ভাস্বর বন্দ্যোপাধায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *