কলারোয়া উপজেলা আ.লীগের কাউন্সিল ॥ পুনরায় সভাপতি স্বপন, নাটকীয়তায় সা.সম্পাদক আলিমুর

প্রভাষক আসাদুজ্জামান ফারুকী : উদ্বেগ-উৎকন্ঠা থাকলেও কেন্দ্রীয় নেতাদের হস্তক্ষেপে শান্তিপূর্ণ ও উৎসবমুখর পরিবেশে সাতক্ষীরার কলারোয়ায় সম্পন্ন হলো উপজেলা আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিল।
সমঝোতার মাধ্যমে এতে সভাপতি হিসেবে পুনরায় মনোনীত হয়েছেন ফিরোজ আহম্মেদ স্বপন। আর অনেকটা নাটকীয়তা আর চমক দেখিয়ে সাধারণ সম্পাদক মনোনীত হয়েছেন আলিমুর রহমান। ফিরোজ আহম্মেদ স্বপন ২০১৪সালের দলীয় কাউন্সিলে সভাপতি নির্বাচিত হয়েছিলেন। বিগত উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ছিলেন তিনি।

আর দলটির সদ্যসাবেক সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম লাল্টুর ভাই আলিমুর রহমান কলারোয়া বাজার ব্যবসায়ী সমিতির বর্তমান সাধারণ সম্পাদক।

শুক্রবার (২৯নভেম্বর) বিকেলে কলারোয়া পাবলিক ইন্সটিটিউট চত্বরে কাউন্সিলর ও ডেলিগেটদের উপস্থিতিতে কাউন্সিলের দ্বিতীয় পর্বের সভায় নতুন আংশিক কমিটির ঘোষনা দেন আ.লীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য এসএম কামাল হোসেন।

ওই সভায় সভাপতিত্ব করেন সাতক্ষীরা জেলা আ.লীগের সভাপতি মুনসুর আহম্মেদ। এর আগে ডাকবাংলায় কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ উপজেলা আ.লীগের স্বপন ও লাল্টু গ্রুপের নেতৃবৃন্দদের নিয়ে ঘন্টাখানিক রুদ্ধদ্বার বৈঠক করে এ কমিটির সিদ্ধান্ত দেন।

উপজেলা আ.লীগের ঘোষিত কমিটির অন্য নেতৃবৃন্দ হলেন- সিনিয়র সহ.সভাপতি আলহাজ্ব খায়বার হোসেন, সহ.সভাপতি আব্দুল ওয়াদুদ ঢালী, আব্দুল হামিদ সরদার, আনোয়ার হোসেন, সম মোরশেদ আলী, আলহাজ্ব শেখ আমজাদ হোসেন। যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান বুলবুল, শামছুদ্দীন আল মাছুদ বাবু, আফজাল হোসেন হাবিল। সাংগঠনিক সম্পাদক রবিউল হাসান, কাজী আসাদুজ্জামান সাহাজাদা ও বেনজীর হোসেন হেলাল। নির্বাহী সদস্য- উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম লাল্টু ও আলহাজ্ব আরাফাত হোসেন।

এর আগে সকাল ১০টায় কলারোয়া ফুটবল মাঠে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন ও বেলুন উড়িয়ে সম্মেলন উদ্বোধনের পর ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিলের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন আ.লীগের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য, সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডা.আফম রুহুল হক এমপি।

তিনি বলেন- ‘আ.লীগে কোন বিভেদ সৃষ্টি করা যাবে না। তাহলে জঙ্গীবাদ-সন্ত্রাস মাথাচাড়া দিতে পারে। বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে আ.লীগ জাতিকে আলোকিত পথ দেখিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা না থাকলে আমরা কেউ নেতা বা জনপ্রতিনিধি হতে পারতাম না।’

তিনি আরো বলেন- ‘দলকে সুসংগঠিত করে সবাইকে উন্নয়ন ও জনগণের কল্যাণে কাজ করতে হবে।’ উপজেলা আ.লীগের সভাপতি ফিরোজ আহম্মেদ স্বপনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন দলটির খুলনা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও জাতীয় সংসদের হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন।

তিনি বলেন- ‘একসময় আপনারা জামাত-বিএনপির দ্বারা নির্যাতিত হয়েছেন। এখন আপনারা নিজেদের দ্বারা নির্যাতিত হচ্ছেন। আমরা আপনাদের নিরাপত্তা দিতে পারিনি। এজন্য আপনাদেরকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।’

উপজেলা আ.লীগের বিদায়ী সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম লাল্টুর পরিচালনায় অনুষ্ঠানে দিকনির্দেশনা মুলক বক্তব্য রাখেন আ.লীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য এসএম কামাল হোসেন।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য রাখেন সাতক্ষীরা জেলা আ.লীগের সভাপতি মুনসুর আহম্মেদ, সাবেক সভাপতি সাবেক সাংসদ ইঞ্জিনিয়ার শেখ মুজিবুর রহমান, সহ.সভাপতি সাতক্ষীরা সদর আসনের এমপি মীর মোস্তাক আহম্মেদ রবি, সাধারণ সম্পাদক জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম, বঙ্গবন্ধু সৈনিকলীগের কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক সরদার মুজিব, জেলা আ.লীগের যুগ্ম সম্পাদক ফিরোজ কামাল শুভ্র, সাংগঠনিক সম্পাদক সাতক্ষীরা সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আসাদুজ্জামান বাবু, আ.লীগ নেতা শওকত হোসেন, তালা উপজেলা চেয়ারম্যান ঘোষ সনৎ কুমার, কেশবপুর পৌর মেয়র রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।

এসময় বিপুল সংখ্যক দলীয় নেতা, কর্মী ও সমর্থকরা উপস্থিত ছিলেন। ব্যানার ফেস্টুন, প্লাকার্ড শোভা পায় কাউন্সিল অনুষ্ঠানের গোটা মাঠজুড়ে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *