দেশে করোনায় আরও ৫ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত বেড়ে ১৬৪

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরো ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়ালো ১৭ জনে। নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন আরো ৪১ জন। এনিয়ে দেশে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ১৬৪ জন।

মঙ্গলবার (৭ এপ্রিল) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অনলাইন ব্রিফিংয়ে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা এ তথ্য জানান।

সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, নতুন শনাক্তের মধ্যে ২৮ জন পুরুষ এবং ১৩ জন নারী। নতুন শনাক্তদের মধ্যে ঢাকায় ২০ জন রয়েছেন। ঢাকার বাইরে নারায়ণগঞ্জকে আমরা ক্লাস্টার হিসেবে চিহ্নিত করেছি। নতুন শনাক্ত ৪১ জনের মধ্যে ১৫ জনই নারায়ণগঞ্জের।

তিনি আরও বলেন, নতুন আক্রান্তদের মধ্যে ১০ বছরের নিচে একজন, ১১ থেকে ২০ বছরের ভেতরে ৪, ২১ থেকে ৩০ এর মধ্যে ১০ জন, ৩১ থেকে ৪০ এর মধ্যে ৫ জন, ৪১ থেকে ৫০ এর মধ্যে ৯ জন, ৫০ থেকে ৬০ জন ৭ জন এবং ৬০ এর বেশি বয়সের রয়েছেন ৫ জন। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে ২০ জন ঢাকার, ১৫ জন নারায়ণগঞ্জের, কুমিল্লা, কেরানীগঞ্জ এবং চট্টগ্রামের একজন করে রয়েছেন। মারা যাওয়া পাঁচ জনের মধ্যে পুরুষ চার ও নারী একজন। মৃতদের মধ্যে ৬০ এর বেশি বছরের দুই জন, ৫০ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে দুই জন এবং ৪১ থেকে ৫০ এর মধ্যে একজন রয়েছেন। মৃতদের দুই জন ঢাকার, তিন জন বিভিন্ন জেলার।

চীনের উহান থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসে বিশ্বজুড়ে আক্রান্তের সংখ্যা এখন পর্যন্ত প্রায় সাড়ে ১৩ লাখ। মারা গেছেন প্রায় পৌনে এক লাখ মানুষ। তবে দুই লাখ ৮৬ হাজারের বেশি রোগী ইতোমধ্যে সুস্থ হয়েছেন।

গত ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সন্ধান পাওয়া যায়। এরপর থেকে প্রায় নিয়মিত কয়েকজন করে নতুন আক্রান্ত রোগীর খবর দিচ্ছিল আইইডিসিআর। এরমধ্যে ৫ এপ্রিল একবারে ১৮ জন আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হওয়ার কথা জানানো হয়। আর তার পরদিন ৬ এপ্রিল নতুন করে ৩৫ জন শনাক্ত বলে জানানো হয়। সবশেষ হিসাবে দেশে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১৬৪। মারা গেছেন ১৭ জন। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩৩ জন।

প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে নানা পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে; যার মূলে রয়েছে মানুষে মানুষে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা। সে বিষয়টি মাথায় রেখে গৃহীত পদক্ষেপগুলোর মধ্যে সর্বশেষ মুসল্লিদের ঘরে নামাজ পড়তে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের আহ্বানও রয়েছে। এছাড়া, মানুষকে ঘরে রাখতে রাজপথের পাশাপাশি পাড়া-মহল্লায় টহল দিচ্ছে সশস্ত্র বাহিনী, র‌্যাব ও পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *