কপিলমুনির অবশিষ্ট মুল্যবান খাসজমি করায়ত্ব করতে একটি চক্রের তৎপরতা

কপিলমুনি (খুলনা) প্রতিনিধিঃ কপিলমুনি বাজারের দখল হয়ে যাওয়া মূল্যবান খাস সম্পত্তির অবশিষ্ট জায়গাটুকুও দখলের পায়তারা করছে একটি চক্র।
জানা গেছে,চক্রটি একজন শ্রমিককে সামনে রেখে অবশিষ্ট ওই জায়গায় মুজিববর্ষের ঘর বরাদ্দ নিতে তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে। কপিলমুনি সাবেক সিনেমা হল সংলগ্ন তিন রাস্তার মোড়ে ২০ লক্ষ টাকা মুল্যের প্রায় ২ শতক সম্পত্তি করায়ত্ব করতে চক্রটি তদবির শুরু করেছে। তবে জায়গাটির মালিকানা নিয়ে বিতর্ক থাকলেও সংশ্লিষ্ট উপজেলা ভুমি প্রশাসনকে ভুল বুঝিয়ে দখল করার জোর পায়তারা চালিয়ে যাচ্ছে বলে একাধিক সুত্রে জানাগেছে। তবে এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট উপজেলা প্রশাসন তা নাকচ করে দিয়েছে। এমনিভাবে কপিলমুনি সদরের বাইপাস সড়কের পাশ বরাবর দখল হয়েছে মুল্যবান সব সম্পত্তি। ঠিক এরই পাশে সদরের মুল্যবান জায়গায় দেয়া হয়েছে মুজিববর্ষে আশ্রায়ন প্রকল্পের ৫ টি ঘর। যা নিয়ে সচেতন এলাকাবাসীর মাঝে দ্বিমত রয়েছে। তাদের মতে কপিলমুনি শহরের সৌন্দর্য বৃদ্ধি, বাজার সম্প্রসারণ ও পৌরসভার পরিবেশ বিবেচনা করে আশ্রায়নের এ সব ঘর গুলো কপোতাক্ষ পাড়ের বিস্তৃর্ণ চরভরাটি জায়গায় নির্মাণ করা যেত। তবে অপরিকল্পিতভাবে বাজার সদরে আশ্রায়ন প্রকল্পের ঘর আর যেন বরাদ্দ না দেয়া হয় সেজন্য জোর দাবি জানিয়েছেন স্থানীয় সুধিমহল।

এদিকে কপিলমুনিতে বিনোদগঞ্জ পৌরসভার গঠনের অফিসিয়াল কাজ শুরু হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সুত্র জানিয়েছে। পৌরসভা প্রতিষ্ঠা হলে এসব মুল্যবান জমি সুপরিকল্পিত নগরায়নের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখবে বলে মনে করেন সচেতনরা। তাদের মতে ইতোমধ্যে ভুমিদস্যু কর্তৃক দখল হওয়া মুল্যবান খাস জমিগুলো উদ্ধার করে কপোতাক্ষ পাড়ের এই কপিলমুনিকে গড়ে তোলা হোক যুগোপযোগী, পরিকল্পিত এক অনিন্দ্যসুন্দর শহর রূপে। এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসকসহ মাননীয় এমপি মহোদয়ের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন কপিলমুনিবাসী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *