কপিলমুনিতে প্রধান সড়ক চলাচলের অনুপোযোগী, কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ জরুরী

জি এম আসলাম হোসেন, কপিলমুনি (খুলনা) ঃ খুলনা-পাইকগাছা প্রধান সড়কে কপিলমুনি বাজার অংশের বর্তমানে বেহাল দশা। প্রধান সড়কের চলমান সংস্কার কাজ ধীর গতিতে করায় চলাচলে দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে বৃহৎজনগোষ্ঠীকে।
সরেজমিনে দেখা যায়, খুলনা-পাইকগাছা সড়কের আঠারো মাইল থেকে পাইকগাছা পর্যন্ত সংস্কার কাজ চলছে। কিন্তু সংস্কার কাজটি এত ধীর গতিতে চলছে যে বর্ষা মৌসুমে মামুদকাটী বাজার থেকে গোলাবাড়ী হয়ে কপিলমুনি হাসপাতাল পর্যন্ত সড়কে চলাচলে একেবারেই অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। সড়কের উল্লেখিত অংশে সংস্কারের জন্য দীর্ঘদিন খুড়ে রাখায় যানবাহনসহ পথচারীদের চলাচলে মারাতœক বিড়ম্বনার শিকার হতে হচ্ছে। প্রায় দিন ঘন্টার পর ঘন্টা যানজটের কবলে পড়তে হচ্ছে তাদের। প্রায় দিন ছোট বড় যানবাহন উল্টে দূর্ঘটনা ঘটতে দেখা যাচ্ছে। গুরুত্বপূর্ণ এ সড়কের কপিলমুনি বাজার অংশের সংস্কার অতি ধীরে করায় স্কুল কলেজের শিক্ষার্ক্ষীদেরও সীমাহীন দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। ইচ্ছে মাফিক খুড়ে রাখা এবড়ো থেবড়ো সড়ক পাড়ি দিয়ে তারা সঠিক সময়ে ক্লাসে যোগ দিতে পারছেন না। রপÍানীযোগ্য কোটি কোটি টাকার হিমায়েত চিংড়ির পরিবহনগুলো দীর্ঘ সময় যানজটের কবলে পড়ায় চিংড়ি নষ্ট হওয়া ও সঠিক সময়ে গন্তব্যে পৌছাতে না পারায় রপ্তানী করতে ব্যর্থ হওয়ায় লোকাসানের সম্মুখীন হচেছন ব্যবসায়ীরা, ফলে দিন দিন ওই সব মৎস্য ব্যবসায়ীদের কপালের চিন্তার ভাজ আরো পুরু হচ্ছে। এ অঞ্চল থেকে প্রতিদিন মোটা অংকের টাকার মাছের চালান দেশের বিভিন্ন জায়গায় পাঠাতে তারা চিন্তিত হয়ে পড়ছেন। তাদের দাবী গুরুত্বপূর্ণ এ অর্থনৈতিক অঞ্চলের কথা বিবেচনা করে অতি দ্রত সড়কটি সংস্কার করা হোক।
সড়কটির বাস চালক আমীর হোসেন বলেন, ‘প্রতিদিন এই রাস্তা দিয়ে আমাদের যাত্রীবাহী বাস চালিয়ে খুলনা থেকে পাইকগাছায় উঠতে হয়। কপিলমুনি এলাকায় রাস্তার বেশিরভাগ স্থানে এতো খারাপ অবস্থা যে এখান থেকে বাস চালাতে গেলে মনে হয় এই বুঝি বাস উল্টে গেল’।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *