উপজেলা নির্বাচন; ভোটারের দেখা নেই কেন্দ্রে

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি : দেশে পঞ্চমবারের মতো উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। প্রথম ধাপে ৭৮ উপজেলায় ভোটগ্রহণ চলছে। সকাল ৮টায় এ ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হলেও অধিকাংশ কেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতি নেই বললেই চলে।

কুড়িগ্রামে প্রথম দফায় ৮টি উপজেলায় সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরু হলেও কেন্দ্রগুলোতে ভোটার উপস্থিতি নেই বললেই চলে। তবে কর্মকর্তাদের আশা বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোটারের উপস্থিতি বাড়বে।

জয়পুরহাটে পাঁচটি উপজেলায় এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। তবে ভোটারের উপস্থিতি বেশ কম লক্ষ্য করা গেছে। কেন্দ্রগুলোতে বিপুল সংখ্যক আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য উপস্থিত থাকলেও নেই চোখে পড়ার মতো ভোটার।

পঞ্চগড়েও পাঁচ উপজেলার বিভিন্ন ভোটকেন্দ্রে সকাল ৮টা থেকে একযোগে শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। তবে সকাল থেকেই ভোটকেন্দ্রগুলোতে ভোটারদের উপস্থিতি কম।

সকাল ১০ পর্যন্ত জেলা শহরের আশপাশে কোনো ভোটকেন্দ্রে ভোটারদের দীর্ঘ লাইন দেখা যায়নি। প্রত্যেকটি ভোটকেন্দ্রে প্রার্থীদের কর্মী ও সমর্থকদের দু’একজনকে ভোট দিতে দেখা গেছে।

পঞ্চগড় জেলার পাঁচ উপজেলার মধ্যে চার উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। বোদা উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

এখানে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী না থাকায় আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ফারুক আলম টবিকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করেন রিটার্নিং অফিসার।

অপরদিকে রাজশাহীর আট উপজেলায় শান্তিপূর্ণ ভোটগ্রহণ চলছে। রোববার সকাল ৮টা থেকে জেলার ৫২২ ভোটকেন্দ্রে একযোগে ভোটগ্রহণ শুরু হয়।

শুরুতে ভোটারদের উপস্থিতি কম থাকলেও বেড়া বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে তা বাড়ছে। উৎসবমুখর পরিবেশে ভোটাধিকার প্রয়োগ করছেন ভোটাররা। সকাল ১০টা পর্যন্ত কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের এই ধাপে রাজশাহীর ৯ উপজেলায় ভোটগ্রহণের কথা থাকলেও উচ্চ আদালতের নিষেধাজ্ঞায় আটকে যায় পবা উপজেলা পরিষদের নির্বাচন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *