অষ্টম শ্রেণি পাস করে ঢাকা মেডিকেল কলেজের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক!

স্টাফ রিপোর্টার : খোরশেদ আলম। কাজ করতেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের ওয়ার্ড বয় হিসেবে। আর সেই অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে এক সময়ের অষ্টম শ্রেণি পাস খোরশেদ হয়ে ওঠেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক। নামের সঙ্গে ব্যবহার করেন একাধিক ডিগ্রি। নিয়মিত দেখতে থাকেন রোগীও।

এ অপরাধে খোরশেদকে ২০১৭ সালে মাগুরায় ও ২০১৩ সালে কুমিল্লায় এক বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছিল ভ্রাম্যমাণ আদালত। এরপরও শোধরাননি তিনি। ফের চিকিৎসক পরিচয়ে প্রতারণা করতে গিয়ে ধরা পড়েছেন পুলিশের হাতে।

মঙ্গলবার দুপুরে চট্টগ্রাম নগরের আকবরশাহ থানার কর্নেল জোনস সড়কের কাট্টলী মেডিকেল হল নামে একটি ফার্মেসি থেকে খোরশেদকে আটক করে পুলিশ। এ সময় তার কাছ থেকে বিভিন্ন ডাক্তারি সরঞ্জাম ও কাগজপত্র উদ্ধার করা হয়।

আটক খোরশেদ হাটহাজারী উপজেলার আব্দুর রহিমের ছেলে। তিনি নগরের পাহাড়তলী থানার সরাইপাড়া এলাকায় থাকতেন।

পুলিশ জানায়, নামের সঙ্গে এমবিবিএস (ডিএমসি), এফসিপিএস (মেডিসিন), এমডি (নিউলজী) ডিগ্রি জুড়ে দিয়ে ৫শ’ টাকা ভিজিটে রোগী দেখছিলেন খোরশেদ। ভিজিটিং কার্ডে নিজেকে উপস্থাপন করেন নিউরোমেডিসিন, স্নায়ুরোগ, ডায়াবেটিস ও মেডিসিন বিশেষজ্ঞ হিসেবে।

আকবরশাহ থানার ওসি মো. জহির হোসেন বলেন, খোরশেদ একজন পেশাদার প্রতারক। চিকিৎসক পরিচয় দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছিলেন তিনি। বিষয়টি নজরে এলে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়। তার কাছ থেকে ডাক্তারি সরঞ্জামসহ নামফলক, ভিজিটিং কার্ড, সিলমোহর ও বিভিন্ন কাগজপত্র উদ্ধার করা হয়। তার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *