১০ হাজার মাইল সৌরকলঙ্কে শুধুই আগুন, গিলে খাবে বিশ্ব ব্রহ্মাণ্ডকে?

প্রযুক্তি ডেস্ক : প্রথমবারের মতো সৌরকলঙ্কের ছবি ধরা পড়েছে বিশ্বের বৃহত্তম সোলার টেলিস্কোপে। মহাজাগতিক এই অবিশ্বাস্য রোমাঞ্চকর দৃশ্য দেখে যেন থমকে যাচ্ছে মানবজাতি। কী হচ্ছে ওখানে? শুধুই আগুন? কী আছে ওই গর্তে? কেমন সে জগৎ?- এমন নানা প্রশ্ন নিয়ে কল্পনার ভেলায় ভাসছে পৃথিবী।

তবে সেই প্রশ্নের বেশকিছু উত্তর দিতে পেরেছেন বিজ্ঞানমহল। তারা জানিয়েছেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হাওয়াই দীপপুঞ্জ থেকে দেখা গিয়েছে সৌরকলঙ্ক। যা দেখার পর থেকে ভয় পাচ্ছে বিজ্ঞানীরাও!

কারণ, এই সৌরকলঙ্কের মারাত্মক প্রভাব পড়তে পারে পৃথিবীতে। যে হামলায় ঠিক কী ঘটতে পারে তা কল্পনার অতীত। বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, গতবারের চেয়ে ভালো রেজোলিউশনে ক্যামেরাবন্দি হয়েছে সৌরকলঙ্ক।

যত বড় হবে সৌরকলঙ্ক, তত কি গিলে খাবে গোটা বিশ্ব ব্রহ্মাণ্ডকে? এমন প্রশ্নও মানবজাতির মনে।

সৌরকলঙ্কের টেলিস্কোপিক ছবি (ছবি : সংগৃহীত)
ছবিতে ধরা পড়েছে সৌরকলঙ্কের সবচেয়ে কালো অংশ। এই সানস্পট সূর্যের একটি অন্ধকার অঞ্চল। যা অন্যান্য অংশের তুলনায় তুলনামূলকভাবে শীতল।

এই সানস্পটগুলিতে আয়ন যুক্ত গ্যাস রয়েছে যা শক্তিশালী চৌম্বকীয় শক্তির ক্ষেত্র তৈরি করে। আমাদের সূর্যের গ্যাসগুলি ক্রমাগত চলমান, যারা এই ‘চৌম্বকীয় ক্ষেত্রে’র কারণে নিয়মভঙ্গ করতে বাধ্য হয়। যা কখনই একই নিয়মে কাজ করে না। এই সৌরকলঙ্ক বা চৌম্বকীয় ক্ষেত্র বৃদ্ধি পেলে সূর্য থেকে বেরিয়ে আসে সৌরবায়ু, সৌরঝড়, সৌরঝলক। যা ভয়ঙ্কর বিপজ্জনক।

যেখানে তাপমাত্রা হতে পারে ৭ হাজার ৫০০ ডিগ্রি ফারেনহাইট। ধারণা করা হচ্ছে, ১০ হাজার মাইল চওড়া এই সৌরকলঙ্ক!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *