সস্ত্রীক করোনায় আক্রান্ত মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক : মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক এবং তার স্ত্রী লায়লা আরজুমান্দ বানু করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়া মন্ত্রীর একান্ত সচিব (পিএস) হাবিবুর রহমানও আক্রান্ত হয়েছেন। তারা চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী বাসায় চিকিৎসা নিচ্ছেন। এ নিয়ে মোট ৯ মন্ত্রী-এমপি করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ২ এমপি। গত বৃহস্পতিবার মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী ও তার স্ত্রীর করোনা টেস্ট করা হয়। গতকাল শুক্রবার তাদের দেহে করোনা পজিটিভ ফলাফল পাওয়া যায়।

মুক্তিয্দ্ধুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

মন্ত্রী নিজের এবং আক্রান্তদের দ্রুত আরোগ্য লাভের জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

এ পর্যন্ত দুই মন্ত্রী এবং সাত সংসদ সদস্যের (এমপি) শরীরেও করোনা দেখা দিয়েছে। তবে দুই এমপি সুস্থ হয়ে গেছেন। লড়ছেন বাকি সাতজন।

পার্বত্য চট্টগ্রামবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিংয় করোনা পজিটিভ হন গত ৬ জুন। ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসা চলছে তার।

সাত এমপির মধ্যে যশোর-৪ (বাঘারপাড়া-অভয়নগর) আসনের রণজিত কুমার রায়ের দেহে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শনাক্ত হয় ৮ জুন। যশোর সিএমএইচে চিকিৎসা চলছে তার।

চট্টগ্রাম-৮ আসনের এমপি মোসলেম উদ্দিনের করোনার পজিটিভ রিপোর্ট পাওয়া যায় ১০ জুন। তার সঙ্গে পজিটিভ রিপোর্ট আসে স্ত্রী, ছেলে, নাতিসহ পরিবারের আরও ১০ সদস্যের।

চট্টগ্রাম-১৬ (বাঁশখালী) আসনের এমপি মো. মোস্তাফিজুর রহমানও সপরিবারে করোনায় আক্রান্ত। ২ জুন ওই এমপিসহ তার পরিবারের মোট ১১ জনের করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

এছাড়া ৩ জুন জামালপুর-২ আসনের এমপি ফরিদুল হক খান দুলাল, তার আগে চট্টগ্রাম-৬ আসনের এমপি এ বি এম ফজলে করিম চৌধুরী, ১৯ মে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ আসনের এমপি মোহাম্মদ এবাদুল করিম বুলবুল ও ১ মে নওগাঁ-২ আসনের এমপি শহীদুজ্জামান সরকারের করোনা সংক্রমণের তথ্য জানা যায়। এর মধ্যে শহীদুজ্জামান সরকার ও এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী করোনাকে জয় করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *