শেষ মুহূর্তে বিএনপি’র নাটকীয় সিদ্ধান্ত

ঢাকা অফিস : সোমবার বিকালে জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর কাছে শপথ নেন একাদশ জাতীয় সংসদে নির্বাচিত বিএনপি’র চার সংসদ সদস্য। দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশে তারা শপথ নিয়েছেন বলে জানান দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এখনও শপথ নেননি। তিনি খুব শিগগিরই শপথ নেবেন। এজন্য স্পিকারের কাছে সময় চেয়েছেন তিনি। এদিকে শেষ মুহূর্তে নাটকীয় সিদ্ধান্তের পর সংসদের চলতি অধিবেশনে যোগ দিয়েছেন বিএনপির পাঁচ সংসদ সদস্য।

সোমবার বিকাল ৫টা ৪০ মিনিটে শপথের আনুষ্ঠানিকতা শেষে দলের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের কবর জিয়ারত করে রাত পৌনে ৮টায় তারা অধিবেশন কক্ষে প্রবেশ করেন। এরপর সংসদে বক্তব্য রাখেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য হারুনুর রশীদ। শাসক দল আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের শীর্ষ নেতা, সংবিধান বিশেষজ্ঞ, সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা বিএনপি ও গণফোরামের মোট সাত এমপির শপথ গ্রহণকে ইতিবাচক বলে মনে করছেন।

একাদশ সংসদের প্রথম দিন থেকে শপথ না নেয়ার বিষয়ে অনড় ছিল বিএনপি। দলের এমপিদের শপথ ঠেকানোর বিষয়ে মরিয়া ছিলেন শীর্ষ নেতারা। প্রথমে এক এমপি শপথ নেয়ায় তাকে দল থেকে বহিষ্কারও করা হয়। স্থায়ী কমিটির সদস্যসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা এ ইস্যুতে দফায় দফায় বৈঠক করেন।

চার এমপিকে নিয়ে আবার তাদের ছাড়াও বৈঠক হয়। শপথ নিলে পরিণতি কী হতে পারে সে ইঙ্গিতও দেয়া হয় তাদের। সব মিলে শপথ ইস্যুতে বিএনপির মধ্যে নানা ধরনের নাটক হয়। শেষ দিন এসে তারা হঠাৎ করেই শপথের বিষয়ে নাটকীয় সিদ্ধান্ত নেন। চলতি সংসদের মেয়াদের ৯০তম দিনে সোমবার হঠাৎ চার এমপিকে শপথ গ্রহণের নির্দেশ দেন দলের হাইকমান্ড। এভাবে হঠাৎ নির্দেশ দেয়াকে কেন্দ্র করে সন্ধ্যা পর্যন্ত নানা ধরনের আলোচনা হয়।

রাতে দলের মহাসচিব সংবাদ সম্মেলন করে বলেন, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশেই চার এমপি শপথ নিয়েছেন। এর পরই অবসান ঘটে এ সংক্রান্ত সব জল্পনা-কল্পনার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *