শালিখায় করোনা ফলাফল বিলম্বে ঘরবন্দী প্রকাশের পরিবার

বাবুল মোস্তফা, শালিখা প্রতিনিধিঃ মাগুরার শালিখায় কোভিড-১৯ এর নমুনা পরীক্ষার  ফলাফলে বিলম্ব হওয়ায় কখনো খেয়ে কখনো অর্ধাহারে মানবেতর জীবনযাপন করছে প্রকাশ কুমার বিশ্বাসের ছয় সদস্যের পরিবার। এমনই অভিযোগ করে কেঁদে ফেললেন প্রকাশের স্ত্রী পূর্ণিমা রায়। তিনি আরও জানান পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি তার স্বামী  প্রকাশ কুমার বিশ্বাস।
সরেজমিন যেয়ে পাওয়া যায় অভিযোগের সত্যতা। গত তিন সপ্তাহ ধরে উপজেলা প্রশাসনের নির্দশনায় ঘরবন্দী রয়েছে পুরো পরিবার।জানা যায় খুলনা শহরে ইস্পাহানি কোম্পানিতে কাজ করতেন ভুক্তভোগী প্রকাশ কুমার। সেখানে থাকা অবস্থায় করোনা উপসর্গ দেখা দেওয়ায় গত ২৫ জুন খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রথমবারের মতো করোনা শনাক্তের লক্ষে নমুনা দেন তিনি। পরে সেখান থেকে চলে আসেন গ্রামের বাড়ি শালিখা উপজেলার আড়পাড়ায়। এখানে  আসার ৯  দিন পর প্রথমবারের ফলাফল না আসায ৪ জুলাই  দ্বিতীয় ধাপে বাড়িতে এসে  তার নমুনা সংগ্রহ  করেন শালিখা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মীরা। যার ফলাফল এখনো পর্যন্ত পাননি ভুক্তবোগী প্রকাশ কুমার বিশ্বাস। এদিকে করোনা উপসর্গ বিদ্যমান থাকায় উপজেলা প্রশাসনের নির্দেশনায় ২৭ জুন শনিবারে ঘরবন্দি করেছে পুরো পরিবারকে। যেখানে রয়েছে প্রকাশের মা-বাবা, স্ত্রী এবং দুই সন্তান। প্রথমে কয়েকদিন প্রতিবেশীরা  খাবারের বন্দোবস্ত করলেও পরে আর করা হয়নি বলে জানান প্রকাশের স্ত্রী পূর্ণিমা রায়।এব্যাপারে জানতে চাইলে  শালিখা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাক্তার গৌরব ব্যানার্জি এ প্রতিবেদক কে জানান, ৪ জুলাইয়ের  নমুনা পরীক্ষার  ফলাফল দুর্ভাগ্যবশত না আসার কারণে তার নিকট থেকে পুনরায় নমুনা সংগ্রহ করা হবে। আড়পাড়া ২ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য জিহাদ  মল্লিক প্রকাশের পরিবারের বরাত দিয়ে জানান, শুনেছি তারা একটু সুস্থ হয়েছে  তবে করোনা পরীক্ষার ফলাফল না আসায় বাড়ি থেকে বের হতে দেওয়া হচ্ছে না।আড়পাড়া করোনা প্রতিরোধ  কমিটির সমন্বয়কারী কর্মকর্তা মোঃ মতিন বলেন বিষয়টি জানা ছিল না এখন জানলাম আমি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানাবো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *