পুলিশ অফিসারকে কুপিয়ে জখম করেছে আসামি

বরিশাল প্রতিবেদক : মামলার তদন্তে গিয়ে আসামি ও তার স্ত্রীর ধারালো অস্ত্রের কোপে গুরুত্বর জখম হওয়ায় পুলিশের এএসআই রফিকুল ইসলামকে মুমূর্ষ অবস্থায় শুক্রবার দুপুরে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। হামলার ঘটনাটি ঘটেছে একইদিন বেলা এগারোটার দিকে বৃহত্তর বরিশালের পিরোজপুরের কাউখালী উপজেলার জয়কুল গ্রামে।
কাউখালী থানার ওসি কামরুজ্জামান তালুকদার জানান, জয়কুল গ্রামের মৃত হানিফ হাওলাদারে পুত্র হায়দার আলী হাওলাদারের বিরুদ্ধে একই গ্রামের হেপী বেগম থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। ওই অভিযোগের সরেজমিন তদন্তের জন্য থানার এএসআই রফিকুল ইসলাম, কনেস্টবল আব্দুল কাদেরকে নিয়ে শুক্রবার বেলা এগারোটার দিকে হায়দার আলীর বাড়িতে যায়। এসময় তাকে (হায়দার) ডাক দিলে হায়দার ও তার স্ত্রী দরজা খুলেই অর্তকিতভাবে দেশীয় ধারালো অস্ত্র দিয়ে এএসআই রফিকুল ইসলামের ওপর হামলা চালায়। হামলাকারী এএসআই’র দুই হাত ও গালে কুপিয়ে পালিয়ে যায়। ওসি আরও জানান, গুরুত্বর জখম অবস্থায় রফিকুল ইসলামকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে প্রথমে কাউখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও তাৎক্ষনিক উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হামলাকারীকে গ্রেফতারের জন্য অভিযান চলছে বলেও ওসি উল্লেখ করেন। গুরুত্বর আহত এএসআই রফিকুল ইসলাম বরিশাল নগরীর রূপাতলী এলাকার মৃত রহিম খানের পুত্র।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *