নড়াইলে সাংবাদিকসহ দু’ব্যক্তিকে অপহরণ ও মারপিটের ঘটনায় মামলা দায়ের

নড়াইল প্রতিনিধি ॥ নড়াইলে জাল দলিলপূর্বক অর্ধকোটি টাকার সম্পত্তি আত্মসাতের চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে সাংবাদিকসহ দু’ব্যক্তিকে অপহরণ ও মারপিটের ঘটনায় আদালতে পৃথক মামলা দায়ের হয়েছে।ঘটনার পর থেকে সাংবাদিক সাজ্জাদ আলম, আলম খান সজল এবং ঘটনার শিকার অপর ব্যক্তি মাসুদ মিয়া চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছেন।
সূত্রে জানা গেছে, নড়াইল পৌর এলাকার দক্ষিণ নড়াইলের বাসিন্দা মো: মাসুদ মিয়ার নানা সিদ্দিক মোল্যার স্বত্ব দখলীয় হাল ১৯১১ দাগের ২৮ শতক জমি জাল দলিলপূর্বক আত্মসাতের চেষ্টা চালান দক্ষিণ নড়াইলের বাসিন্দা মো: আরমান মোল্যা ও তার মা লাবনী খাতুন।এ ঘটনায় মাসুদ মিয়া বাদী হয়ে ২০১৮ সালের ২১ মার্চ ৫জনকে আসামি করে নড়াইল সদর আমলী আদালতে মামলা দায়ের করেন। আদালত মামলাটি তদন্তের জন্য সদর সাব রেজিষ্ট্রি অফিসারকে নির্দেশ দেন। সাব রেজিষ্ট্রার মামলাটি তদন্তপূর্বক আসামীদের ঘটনার সঙ্গে সম্পৃক্তার অভিযোগ এনে তদন্ত প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করেন।পরবর্তীতে মামলার আসামীরা আদালতে হাজির হলে বিচারক ৪জনকে জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণ করেন। পূর্ব পরিচিতির সূত্র ধরে বাদী মাসুদ মিয়াকে মামলার বিভিন্ন পর্যায়ে সহযোগিতা করেন সাংবাদিক সাজ্জাদ আলম আলম খান সজল।মামলার বাদীকে সহযোগিতার কারণে প্রতিপক্ষ গ্রুপের লোকজন মামলার বাদী মাসুদ মিয়া ও সাংবাদিক সজল খানকে দেখে নেয়ার হুমকি-ধামকিসহ শায়েস্তা করার বিভিন্ন পরিকল্পনা আঁটতে থাকে।
মামলা সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছরের গত ১৮ ফেব্রুয়ারি রাত ৮টার দিকে ৭-৮জন লোক অস্ত্রশস্ত্রসহ বে-আইনী জোটবদ্ধ হয়ে রুপগঞ্জ খাদ্য গুদামের ২নং গেটের পাশে মাফুজারের চায়ের দোকানের সন্নিকট থেকে সজল খানকে অপহরণ করে খাদ্য গুদামের ভিতর নিয়ে তার পকেটে থাকা নগদ ১লক্ষ ১০হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয় এবং সজলের স্ত্রীকে দিয়ে আরো ৬৫ হাজার টাকা এনে দিতে বাধ্য করে। এ ঘটনার পরের দিন ১৯ ফেব্রুয়ারি দক্ষিণ নড়াইলের ইয়ামিন মোল্যা, শিহাব শিকদারসহ ৭জনের নাম উল্লেখ করে সাজ্জাদ আলম আলম খান বাদী হয়ে সদর আমলী আদালতে মামলা দায়ের করেন।মামলা করায় ক্ষিপ্ত হয়ে আসামীরা অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে গত ২৫ ফেব্রুয়ারি রাত ৯টার দিকে সজল খানের শহরের রুপগঞ্জস্থ কুড়িগ্রাম এলাকার বাসা ঘিরে ফেলে। বাদী আত্মরক্ষার্থে চিৎকার দিলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। এ ঘটনা উল্লেখ করে নড়াইল নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে ১০৭ ধারায় মামলা দায়ের করেন সাজ্জাদ আলম আলম খান সজল।
এছাড়া সম্পত্তি জালিয়াতি মামলার বাদী মো: মাসুদ মিয়াকে গত ২১ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৭টার দিকে ভিক্টোরিয়া কলেজ মোড় এলাকায় অবস্থিত ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ইয়ামিন মোল্যা,রিজভী মোল্যাসহ সন্ত্রাসীরা ঢুকে তাকে বেধড়ক মারপিট করে ১৩ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। ঘটনা উল্লেখ করে তিনি নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের আদালতে ১০৭ ধারায় মামলা দায়ের করেছেন। একই ঘটনা উল্লেখ করে নিজের জীবনের এবং পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তা চেয়ে পুলিশ সুপারের কাছে তিনি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *