নুসরাত হত্যাকাণ্ডে মাদ্রাসার পরিচালনা পর্ষদ বাতিল

ফেনী প্রতিনিধি : নুসরাত জাহান রাফিকে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসার ১৩ সদস্য বিশিষ্ট পরিচালনা পর্ষদ বাতিল (বিলুপ্ত) ঘোষণা করেছে ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা।

শুক্রবার মাদ্রাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো. হোসাইন আহমদ জানান, ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর ড. আহছান উল্লাহ পর্ষদ বাতিলের (বিলুপ্তির) বিষয়টি তাকে নিশ্চিত করেছেন।

আগামী ২/১ দিনের মধ্যে ৫ সদস্য বিশিষ্ট আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হবে বলেও জানান ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ।

উল্লেখ্য, অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলার বিরুদ্ধে নুসরাতকে যৌন হয়রানি করার মামলায় গত ২৭ মার্চ তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

গত ৬ এপ্রিল নুসরাতকে মাদ্রাসার ছাদে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা করা হয়।

এ ঘটনায় মাদ্রাসা কমিটির সহ-সভাপতি ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি রুহুল আমিনসহ অন্যান্যদের বিরুদ্ধে অবহেলার অভিযোগ উঠে।

জাতীয় মানবাধিকার কমিশন ও পুলিশ সদর দপ্তরের প্রাথমিক তদন্তে তা প্রমাণিতও হয়।

গত ১০ এপ্রিল ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় নুসরাত মারা যান।

এ ঘটনায় হত্যা মামলা হওয়ার পর এখন পর্যন্ত ১৭ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এরমধ্যে সিরাজ উদদৌলার ‘ঘনিষ্ঠ’ নূর উদ্দিন ও শাহাদাত হোসেন শামীম, শরীফ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন আদালতে।

বাকি আসামিদের রিমান্ডে নেয়া হয়েছে।

এছাড়া জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক হয়েছেন সহপাঠী মো. শামীম ও জান্নাতুল আফরোজ মনি।

এদিকে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) প্রধান বনজ কুমার মজুমদার জানান, তদন্তের মাধ্যমে এ ঘটনায় জড়িত পরোক্ষদেরও আইনের আওতায় আনা হবে।

এদিকে নুসরাতের ভিডিও ধারণ করে তা ছড়িয়ে দেয়ার অভিযোগে গত ১৫ এপ্রিল সোনাগাজী থানার ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনের বিরুদ্ধে আইসিটি আইনে মামলা করা হয়েছে। এ মামলাও তদন্তের জন্য পিবিআইকে দায়িত্ব দিয়েছেন আদালত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *