এবার ভারতের বিরুদ্ধে প্রতিরোধের ডাক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : জম্মু-কাশ্মীরকে দ্বিখণ্ডিত করা ও সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল করার পর টানা ২০ দিন ধরে উপত্যকা অবরুদ্ধ। রাজ্যের সাবেক মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে গৃহবন্দী করে রাখা হয়েছে সব দলের গুরুত্বপূর্ণ নেতাদের। অনেককে গ্রেফতার করে রাজ্যের বাইরেও নিয়ে যাওয়া হয়েছে। কোনো দলকে রাজনৈতিক কর্মসূচি নিতে দেওয়া হচ্ছে না।

এই কড়াকড়ির মধ্যে ভারতের বিরুদ্ধে শান্তিপূর্ণ প্রতিরোধের ডাক দিয়েছেন কাশ্মিরের স্বাধীনতাকামী সংগঠন হুররিয়ত কনফারেন্সের নেতা সৈয়দ আলী শাহ গিলানি। গৃহবন্দি অবস্থা থেকে এক বিবৃতিতে কাশ্মিরের জনগণের প্রতি এ আহ্বান জানিয়েছেন ৮৯ বছরের এ রাজনীতিক।

সৈয়দ আলী শাহ গিলানি বলেন, জম্মু-কাশ্মিরের জনগণের কাছে আমাদের আন্তরিক আবেদন, এই সংকটময় মুহুর্তে আমাদের অবশ্যই প্রতিরোধ অব্যাহত রাখতে হবে। সাধ্য অনুযায়ী, আমাদের সবারই এই প্রতিরোধে অংশ নেওয়া উচিত। জনগণের উচিত শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভের আয়োজন করা এবং নিজ নিজ এলাকায় বিক্ষোভ প্রদর্শন।

ভারত সরকার কাশ্মিরের স্বায়ত্তশাসন বাতিল করে অঞ্চলটিকে দুই টুকরো করে ফেলার পর থেকেই গৃহবন্দি অবস্থায় রয়েছেন হুররিয়ত নেতা সৈয়দ আলী শাহ গিলানি।

উল্লেখ্য, গত ৫ আগস্ট জম্মু-কাশ্মিরের আংশিক স্বায়ত্বশাসন তুলে নেয় ভারত সরকার। এরপর থেকেই শুরু হয় উত্তেজনা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রের জন্য কাশ্মিরজুড়ে কয়েক লাখ আধা সেনানী সদা সজাগ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *