এবার ট্রেনে চড়ল গরু

নিজস্ব প্রতিবেদক : পবিত্র ঈদুল আজহা সামনে রেখে কোরবানির পশু পরিবহন শুরু করেছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। এর আগে শাকসবজি ও আমর পরিবহন করেছে রেল। এবার কোরবানির গরু পরিবহন করল ট্রেন। প্রচলিত ভাড়ায় কোরবানির পশু পরিবহন করা হচ্ছে। গত মঙ্গলবার রাতে ২৫ বগির ক্যাটল ট্রেনটি জামালপুরের ইসলামপুর রেলওয়ে স্টেশন থেকে ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেয়। গতকাল বুধবার সকালে গরুবাহী ট্রেনটি কমলাপুর রেলস্টেশনে পৌঁছায়। রেল সূত্র জানায়, কোরবানির পশু পরিবহনের জন্য চালু হওয়া ক্যাটল স্পেশাল ট্রেনের প্রথম যাত্রা এটি।

এর আগে কোরবানির ঈদ উপলক্ষে দেশের উত্তরাঞ্চল ও পশ্চিমাঞ্চল থেকে ঢাকা ও চট্টগ্রামে ট্রেনে করে কোরবানির পশু পরিবহনের উদ্যোগ নেওয়া হয় জুলাইয়ের প্রথম দিকে। কিন্তু ব্যবসায়ীদের আগ্রহ না থাকায় পশ্চিমাঞ্চল থেকে ট্রেন পরিচালনা করতে পারছিল না রেলওয়ে। রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চলের চিফ কমার্শিয়াল ম্যানেজার মোহাম্মদ আহসান উল্লাহ ভূঁঞা বলেন, বুকিং না থাকায় এ অঞ্চল থেকে কোনো পশুবাহী ট্রেন চালু করা সম্ভব হয়নি।

এর আগে রেলওয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কোরবানির পশু পরিবহনের লক্ষ্যে খুলনা-ঢাকা-খুলনা রুটে এক জোড়া এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জ-ঢাকা-চাঁপাইনবাবগঞ্জ রুটে এক জোড়া করে মোট দুই জোড়া ‘ক্যাটল স্পেশাল’ ট্রেন চলবে। ট্রেনে গরু আনা বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, পরিবহনে কম খরচ ও নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে তারা খুশি। প্রতিটি গরু ঢাকায় আনতে খরচ হয়েছে ৫০০ টাকা। আর পুরো বগি বুকিংয়ে লেগেছে ৮ হাজার টাকা।

তারা বলছেন, ট্রাকে গরু পরিবহনে অনেক খরচ। সে তুলনায় ট্রেনে গরুপ্রতি ভাড়া অনেক কম পড়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ট্রেনের ব্রডগেজের ওয়াগনে ১৬টি করে গরু পরিবহন করা হয়েছে। প্রতিটি গরুর জন্য ভাড়া নেওয়া হয়েছে ৫০০ টাকা এবং প্রতিটি ওয়াগনের ভাড়া নেওয়া হয়েছে ৮ হাজার টাকা। সম্প্রতি ক্যাটল ট্রেনের বিষয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন বলেন, আসন্ন পবিত্র ঈদুল আজহায় বাংলাদেশ রেলওয়ে প্রচলিত ভাড়ায় উত্তরাঞ্চল ও পশ্চিমাঞ্চল থেকে ঢাকা ও চট্টগ্রামমুখী কোরবানির পশু পরিবহনের উদ্যোগ নিয়েছে। ব্যবসায়ীদের চাহিদার ভিত্তিতে এ ট্রেনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। গাইবান্ধা, পাবনা ও কুষ্টিয়া থেকে চট্টগ্রামে আনতে প্রতি গরুর ভাড়া সর্বোচ্চ ২৫০০ এবং ঢাকায় ১৫০০ থেকে ২০০০ টাকা পড়বে।

জানা গেছে, মিটারগেজের একটি লাগেজ ভ্যানে ১৬টি গরু পরিবহন করা সম্ভব। আর ব্রডগেজে ২০-২১টি গরুর ওঠানো যাবে। এমন একটি মিটারগেজ ট্রেন গাইবান্ধা থেকে চট্টগ্রামে পর্যন্ত যেতে ৩৩-৩৪ হাজার টাকা ভাড়া পড়বে। পাবনা থেকে ঢাকা এলে ভাড়া আরও কম লাগবে। সবমিলিয়ে একটি গরু ঢাকা আনলে দেড় থেকে দুই হাজার টাকার মধ্যে খরচ পড়তে পারে। চট্টগ্রামে গেলে দুই থেকে আড়াই হাজার টাকা লাগবে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পূর্ব রেলের চিফ কমার্শিয়াল ম্যানেজার মোহাম্মদ নাজমুল ইসলাম। তিনি জানান, ২৫টি ওয়াগনে মোট ২৭০টি গরু এসেছে। গরু প্রতি মাত্র ৫০০ টাকা ভাড়া নেওয়া হয়েছে। এর আগে ২০০৮ সালে জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ ঘাট থেকে সাতটি কোরবানির পশুবাহী ট্রেন পরিচালনা করেছিল রেলওয়ে। রেলওয়ে এর মধ্যে আম পরিবহনে ম্যাংগো স্পেশাল নামে ট্রেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও রাজশাহী থেকে পরিচালনা করেছে। এর ফলে ব্যবসায়ীরা সহজেই ঢাকাসহ অন্যান্য শহরে খুবই অল্প ভাড়ায় আম পরিবহন করেছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *