আ. লীগের তৃণমূল নেতাদের ডাটা কেন্দ্রে পাঠানোর নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক : মহানগর, জেলা, থানা ও ইউনিয়ন পর্যায়ের দলীয় নেতাকর্মীদের ডাটা আগামী ২ সপ্তাহের মধ্যে কেন্দ্রে পাঠাতে নির্দেশ দিয়েছে আওয়ামী লীগ।
শনিবার (১৫ জুন) ঢাকা বিভাগের সাংগঠনিক সভায় এ নির্দেশ দেওয়া হয়। রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় সহযোগী সংগঠনগুলোর বিরুদ্ধে কমিটি গঠনে সমন্বয় না করা, স্বাধীনতাবিরোধী পরিবারের সদস্যদের দলে স্থান দেওয়া, দলীয় কর্মসূচি পালনে সহযোগিতা না করার অভিযোগ করেন ঢাকা বিভাগের জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ নেতারা। এ বিষয়ে কেন্দ্রের কাছ থেকে সুনির্দিষ্ট নির্দেশনাও চান তারা।
আওয়ামী লীগের ঢাকা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দলীয় সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। বিশেষ এই সাংগঠনিক সভায় তিনি দলের মধ্যকার কলহ দূর করার নির্দেশ দেন। তিনি দলের সভাপতির নির্দেশ অক্ষরে অক্ষরে মেনে চলতেও তৃণমূল নেতাদের নির্দেশ দেন। ওবায়দুল কাদের সভায় উত্থাপিত জেলা মহানগর নেতাদের বিভিন্ন প্রস্তাব আওয়ামী লীগের আগামী কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠকে তোলা হবে বলে আশস্ত করেন। এর পাশাপাশি আগামী ২৩ জুন দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর কর্মসূচি যথাযথভাবে পালন করতে নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান।
সভায় গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি চৌধুরী এমদাদুল হক, টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুর রহমান ফারুক, রাজবাড়ী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জিল্লুর হাকিম, রাজবাড়ী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী কেরামত আলী, শরীয়তপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অনল কুমার দে, নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই, নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন, মুন্সিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. মহিউদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক শেখ লুৎফর রহমান, ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বেনজির আহমেদ, নরসিংদী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম বীরপ্রতীক, মানিকগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম মহিউদ্দিন, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম রহমত উল্লাহ, সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান, দক্ষিণের সভাপতি আবুল হাসানাত ও সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, গাজীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আ ক ম মেজাম্মেল হক, গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম সরকার এবং কিশোরগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ আফজল বক্তব্য রাখেন। তারা নিজ নিজ জেলা মহানগর কমিটির সাংগঠনিক রিপোর্ট সংক্ষেপে উপস্থাপন করেন।
ঢাকা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক ও শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলের সঞ্চালনায় সভায় দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন দফতর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাস, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক শামসুন্নাহার চাঁপা, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য মারুফা আক্তার পপি, আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *