আমরা এই দায় এড়াতে পারি না : ঢাবি উপ-উপাচার্য

ঢাকা অফিস : ডাকসু নির্বাচনে অনিয়মের দায় কোনোভাবেই প্রশাসন এড়াতে পারে না বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য ড. মুহাম্মদ সামাদ। সোমবার (১১ মার্চ) সকালে বাংলাদেশ চীন মৈত্রী হলে বস্তাভর্তি সিল মারা ব্যালট পেরার উদ্ধারের পর একথা বলেন তিনি। সময় টিভি

ড. মুহাম্মদ সামাদ বলেন, এই কেন্দ্রে নির্বাচন অবশ্যই স্থগিত। এই নির্বাচন স্থগিত না করার কোনো উপায় আছে? এই দায় আমরা এড়াতে পারিনা। আমরা এই বিষয়ে দ্রুত ব্যবস্থা নিবো।

অনিয়মের প্রমাণ পাওয়ায় কুয়েত মৈত্রী হলের ডাকসু ও হল সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ স্থগিত করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। শিক্ষার্থী এবং বিভিন্ন প্যানেলের প্রার্থীরা অভিযোগ করেন, রাতে আগে থেকেই ব্যালট পেপারে সিল মেরে রেখে দিয়েছিল ছাত্রলীগ।

সোমবার সকাল ৮টা থেকে ভোট শুরুর কথা থাকলেও ছাত্রীদের বাধার মুখে নিদিষ্ট সময়ে ভোট গ্রহণ শুরু করতে পারেনি নির্বাচন কমিশন। এ ঘটনায় হলের ভারপ্রাপ্ত প্রভোস্ট শবনম জাহানকে বরখাস্ত করা হয়। নতুন প্রভোস্ট হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে অধ্যাপক মাহবুবা নাসরিন।

শিক্ষার্থীরা জানান, তাদের ব্যালট পেপার দেখানো হচ্ছিল না। অন্যান্য হলে দেখা হয় এই হলে দেখানো হয়নি।
পরে বস্তাভর্তি সিল মারা ব্যালট পেপার উদ্ধার করে শিক্ষার্থীরা। এরপরই বিক্ষোভ শুরু করেন তারা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি, প্রক্টর ও রিটার্নিং কর্মকর্তারা। পরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর এ কে এম গোলাম রাব্বানী বলেন, শিক্ষার্থীদের অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *